সোমবার , ৩০শে নভেম্বর, ২০২০ , ১৫ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ , ১৪ই রবিউস সানি, ১৪৪২

হোম > খেলা > আতঙ্কে নেই আশরাফুল

আতঙ্কে নেই আশরাফুল

শেয়ার করুন

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ কবে আসছে আকসু’র রিপোর্ট! এখন বিষয়টি আর প্রশ্নে সীমাবদ্ধ নেই, পরিণত হয়েছে সংশয়ে। বোর্ড সভাপতির একের পর এক ঘোষিত দিনক্ষণ প্রায় শেষ হয়ে আসছে। তবে আকসু’র রিপোর্ট পাওয়া নিয়ে সঠিক তথ্য কারও জানা নেই। নানা সন্দেহ নিয়ে ডালপালা ছড়াচ্ছে নানা আলোচনাও। তবে ঘটনার নায়ক মো. আশরাফুল আছেন নীরব অপেক্ষায়। যখনই আসুক রিপোর্ট তা নিয়ে কোন উৎকণ্ঠা নেই তার। ক্রিকেট থেকে সাময়িক নিষিদ্ধ হওয়ার পর কেমন চলছে তার দিনগুলো? প্রতিবার রোজা আর ঈদ তিনি যেভাবে পালন করেন এবার সেই পরিবেশ নেই। তাহলে কিভাবে কাটছে তার সময়! গতকাল তার আকসু’র রিপোর্টের অপেক্ষা, রোজা ও নিজের এবারের ঈদ প্রস্তুতি নিয়ে কথা বলেছেন মানবজমিনে’র সঙ্গে। আশরাফুল তার বর্তমান দিনকাল নিয়ে বলেন, ‘আসলে অন্য বছরের তুলনায় এবারের সময়টা কাটছে অন্যরকম। আগে প্রতি রোজাতেই আমাদের অনুশীলন থাকত কিংবা খেলা থাকত, তাই সব রোজা রাখতে পারতাম না। তবে এবার সে রকমটা নেই। আমি এবারও আল্লাহর রহমতে সব রোজা রাখতে পারছি। আর জানেনই তো সামনের মাসেই আসছে আকসু’র রিপোর্ট। তার অপেক্ষা তো আছেই।’
মো. আশরাফুলের কথাতে ধারণা পাওয়া যায়, ঈদের পরই আসছে আকসু’র রিপোর্ট। আর একই কথা বলেছেন বিসিবি’র সভাপতি নাজমুল হাসান পাপনও। তিনি গতকাল বিসিবিতে অনূর্ধ্ব-১৯ দলের সঙ্গে ফটোসেশনের পর বলেন, ‘আমি প্রতিবেদনটি ঈদের পরই দিতে বলেছি।’ তবে প্রতিবেদন নিয়ে সবার মধ্যে যে আতঙ্ক, সেই আতঙ্ক নেই আশরাফুলের মধ্যে। তিনি বলেন, ‘যা হওয়ার তাই হবে। আমি এতটা উৎকণ্ঠার মধ্যে নেই। তবে বড় তেমন কিছু ঘটবে বলে মনে হয় না। আর যেটা হবে তা তো হওয়ার ছিল বলেই হবে।’
একে একে অনূর্ধ্ব-১৯ দল, অনূর্ধ্ব-২৩ দল, ‘এ’ দল ঘোষণা হয়েছে। কিছুদিনের মধ্যেই জাতীয় দলও ঘোষণা হবে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ঘরোয়া সিরিজের জন্য। একটা সময় ছিল আশরাফুল দলে আছেন কি নেই, তা নিয়ে সংবাদকর্মীদের থাকতো সজাগ দৃষ্টি। এবার প্রেক্ষাপট ব্যতিক্রম। আশরাফুল নিজেও তা স্বীকার করে নিলেন। তিনি বলেন, ‘খুব খারাপ লাগছে। এবার দল ঘোষণা হবে। তবে আমি উৎকণ্ঠায় থাকব না যে দলে আছি কি নেই। তবে কিছু করার নেই, নিয়তি! যা হওয়ার তাই হয়েছে। মেনে নিতেই হবে আমাকে।’
অন্যদিকে সামনে ঈদ। আর এবারের ঈদ নিয়ে আশরাফুল বলেন, ‘আসলে অনেক সময় খেলার জন্য ঈদ দেশের বাইরে করতে হয়েছে। পরিবারের সঙ্গে করতে পারিনি। তবে এবার তা হচ্ছে না। এবার পরিবারের সঙ্গেই ঈদ করব।’ তবে পরিবারের সঙ্গে ঈদে কোন বিশেষ পরিকল্পনা নেই বলেও তিনি জানান। আশরাফুল বলেন, ‘আসলে ঈদে কি কিনব বা কাকে কি দেব সেই ভাবনাটা আমি করিনি। প্রতিবারই এসব আমার বড় ভাইয়েরা করেন। এবারও তারাই করবেন। আর ঈদের দিন যদি বন্ধুরা দাওয়াত দেয় তাহলে বেড়াতে যাবো। আর নামাজ পড়বো। বাসায় সবার সঙ্গে কাটাবো। এ ছাড়া আর কিছু করার নেই।’ আকসু’র অনাগত রিপোর্টে কোন প্রভাব পড়বে কি না তার ঈদ পালনে? আশরাফুল জানালেন, ‘না, যা হওয়ার তা হয়েছে আর হবে। এ নিয়ে বাড়তি কিছু ভাবছি না।’ বেশ কিছুদিন থেকে শোনা যাচ্ছিল আশরাফুল বিয়ে করবেন। নিজেও বলেছিলেন শ্রীলঙ্কা সফর থেকে ফিরে হয়তো পরিবার চাইলে বিয়েটা সেরেও ফেলতে পারেন। তবে আশরাফুল এবার জানালেন তার বিয়ে নিয়ে ভিন্ন কথা। তিনি বলেন, ‘বিয়ে নিয়ে এখন আর ভাবছি না। পরিবার থেকেও চিন্তা করছে না। আল্লাহর যখন হুকুম হবে তখনই বিয়ে হবে।’
ওদিকে রোজা আর নামাজে মনোযোগ থাকায় এখন তিনি ফিটনেস ধরে রাখতে কোন অনুশীল করছেন না। তবে তিনি অনুশীলন একেবারে ছেড়ে দেবেন তাও না। তিনি বলেন, ‘আকসু’র রিপোর্ট কি হবে জানি না। তবে আমি অনুশীল ছাড়বো না। এখন রোজার জন্য করছি না। তবে নিজের ফিটনেস ধরে রাখতে অনুশীলনটা চালিয়ে যাব।’ ঈদের পর আকসু’র রিপোর্ট এলে আশরাফুলের জন্য শাস্তি থাকবে, এটা সবারই জানা। আজীবন নিষিদ্ধ হওয়ার শঙ্কাও আছে। তবে তিনি নিজে দোষ স্বীকার করে নেয়ায় সেই শাস্তির পরিমাণটা কম হতে পারে- এমন সবার ধারণা। তবে তার ফিটনেস ধরে রাখতে অনুশীলন চালিয়ে যাওয়া এবং প্রত্যয় দেখে বলা যেতে পারে আশরাফুল যখনই হোক ফিরতে চান আবারও ক্রিকেটে!

>