বৃহস্পতিবার , ২৫শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ , ১২ই ফাল্গুন, ১৪২৭ , ১২ই রজব, ১৪৪২

হোম > রাজনীতি > এক রাতেই গ্রেফতার ২০ নেতাকর্মী, বাদ যায়নি শিশুও: দাবি শাহাদাতের

এক রাতেই গ্রেফতার ২০ নেতাকর্মী, বাদ যায়নি শিশুও: দাবি শাহাদাতের

শেয়ার করুন

স্টাফ রিপোর্টার ॥
অভিযোগ করে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন (চসিক) নির্বাচনে বিএনপি মনোনীত মেয়র প্রার্থী ডা. শাহাদাত হোসেন বলেছেন, গতকাল রোববার (২৪ জানুয়ারি) রাতে নগরের বিভিন্ন এলাকায় বিএনপি নেতাকর্মীদের বাড়িতে অভিযান চালিয়ে ২০ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এর মধ্যে নগরের বাকলিয়া এলাকা থেকে বিএনপির এক নারীকর্মী ও তার ১২ বছরের শিশুকেও গ্রেফতার করেছে তারা।

সোমবার (২৫ জানুয়ারি) বেলা ১১টায় নগর বিএনপির দলীয় কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব অভিযোগ করেন।

ডা. শাহাদাত হোসেন বলেন, গত ১৯ তারিখ থেকে আজ সোমবার ভোর পর্যন্ত নগরের বিভিন্ন থানায় ১০টির বেশি ‘ফেব্রিকেটেড’ মামলা দায়ের করা হয়েছে পুলিশের পক্ষ থেকে। এসব মামলায় আসামি করা হয়েছে বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠনের প্রায় এক হাজার কর্মীকে। গত সাত দিনে এসব মামলায় গ্রেফতার করা হয়েছে ৬৯ জনকে। এর মধ্যে শুধুমাত্র গতকাল এক রাতেই ২০ নেতাকর্মীকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

নির্বাচনের ঠিক আগ মুহূর্তে নির্বাচনী পরিবেশ নষ্ট করা হচ্ছে দাবি করে তিনি বলেন, গত মার্চ মাসে নির্বাচান স্থগিত হওয়ার পর এই ১০ মাসে করোনা মহামারির মধ্যে ভোটারদের আস্থা অর্জনে জীবনের ঝুঁকি নিয়ে অবিরাম মানুষের দুয়ারে ছুটে গেছি। কিন্তু কিছু সন্ত্রাসী ও পুলিশ সদস্যদের অতি উৎসাহী ভূমিকার কারণে সেই পরিবেশ পুরোপুরি ধ্বংস হয়ে গেছে।

শাহাদাত বলেন, গতকাল রাতে লুঙ্গি পড়া অবস্থায় চট্টগ্রাম নাগরিক ঐক্য পরিষদের আহ্বায়ক বীর মুক্তিযোদ্ধা একরামুল করিমকে তার ছেলেসহ থানায় তুলে নিয়ে যায় চকবাজার থানা পুলিশ। ছেলেটি কোনো পলিটিক্সের সঙ্গে যুক্ত নয়। আমি ও ভিপি নাজিম ভাই গিয়ে অনেক অনুরোধ করে তাকে ছাড়িয়ে এনেছি।

এ সময় তিনি গতকাল রাতে বিনা কারণে গ্রেফতার হওয়া নেতাকর্মীদের মুক্তির দাবি জানান। অন্যথায় নগরের সব কাউন্সিলর প্রার্থীদের নিয়ে রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয়ে অবস্থান কর্মসূচির ঘোষণা দেন।

শাহাদাত বলেন, আমরা এখনি গ্রেফতার ব্যক্তিদের তালিকা নিয়ে নির্বাচন কমিশনে যাব। আজকের মধ্যেই তাদের মুক্তি দিতে হবে। অন্যথায় আমরা সেখানে অবস্থান করব।

>