শুক্রবার , ২৩শে এপ্রিল, ২০২১ , ১০ই বৈশাখ, ১৪২৮ , ১০ই রমজান, ১৪৪২

হোম > জাতীয় > করোনা : ঢাকা ছাড়া নিয়ে উদ্বেগ ইউরোপীয় ইউনিয়নের কূটনীতিকদের

করোনা : ঢাকা ছাড়া নিয়ে উদ্বেগ ইউরোপীয় ইউনিয়নের কূটনীতিকদের

শেয়ার করুন

বাংলাভূমি ডেস্ক ॥
করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ঠেকাতে বৃটেন ছাড়া ইউরোপের সঙ্গে বাংলাদেশের বিমান চলাচলে নিষেধাজ্ঞা আরোপের সিদ্ধান্তে উদ্বেগ পকাশ করেছে ঢাকায় থাকা ইউরোপীয় ইউনিয়ন জোটের প্রতিনিধিরা। তারা এ নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে একটি চিঠি পাঠিয়েছেন। তারা জানতে চেয়েছেন, উদ্ভূত পরিস্থিতিতে বাংলাদেশে থাকা ইউরোপীয় কূটনীতিক, তাদের পরিবার এবং ইউরোপীয় ইউনিয়নভুক্ত ২৭ রাষ্ট্রের নাগরিকদের ঢাকা থেকে বের হওয়ার ব্যবস্থা শেষ ব্যবস্থা আছে কি-না। তারা এ-ও জানতে চেয়েছেন, বাংলাদেশে কোনো কূটনীতিক করোনা আক্রান্ত হলে তাদের চিকিৎসায় বিশেষ কোনো ব্যবস্থা আছে কি-না?

এ বিষয়ে সরকারের তরফে তাৎক্ষণিক জানানো হয়েছে, ফ্লাইট পুরোপুরি বন্ধ করা হয়নি। বিশেষ প্রয়োজনে লোকজনের যাতায়াতের বিষয়টি বিবেচনায় যুক্তরাজ্য, চীন, থাইল্যান্ড ও হংকং-এ চারটি রুট চালু রাখা হচ্ছে। ইউরোপীয় কূটনীতিক ও নাগরিকরা ওই রুট ব্যবহার করে নিজ নিজ দেশ বা তাদের পছন্দের গন্তব্যে যেতে পারেন।

দ্বিতীয়ত, তারা একসঙ্গে যেতে চাইলে সবাই মিলে একটি বিমান ভাড়া করতে পারেন। সেই চাটার্ড ফ্লাইটে তারা যেতে পারেন। বাংলাদেশ তাদের যাত্রা নির্বিঘ্ন করতে সব ধরনের সহায়তা দেবে।

তার্কিশ এয়ারলাইন্সের একটি বিশেষ ফ্লাইট (খালি) ২৪ মার্চ ঢাকা আসছে। তাতেও ইউরোপীয় কূটনীতিক এবং তাদের পরিবারের সদস্যরা ফিরতে পারবেন বলে সরকার জানিয়েছে। তালিকা দিলে ঢাকা তুরস্কের সঙ্গে কথা বলবে কিংবা তারা নিজেরাও যোগাযোগ করে ফিরতে পারবেন।

কূটনৈতিক সূত্র জানিয়েছে, পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ওই জবাব পাওয়ার পরও ইউরোপীয় কূটনীতিক এবং ঢাকায় জাপানের রাষ্ট্রদূত পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে বৈঠক চেয়েছেন। আজ বা কাল ওই বৈঠকটি হতে পারে।

বিষয়টি করোনাভাইরাস সম্পর্কিত হওয়ায় করোনা সেলের প্রধান অতিরিক্ত সচিব ডা. খলিলুর রহমানের সঙ্গে বৈঠকটি হতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে। পররাষ্ট্র মন্ত্রী ড. এ কে আবদুল মোমেন ইউরোপীয় ইউনিয়নের উদ্বেগ সংক্রান্ত চিঠি পাওয়ার বিষয়টি স্বীকার করেছেন এবং বাংলাদেশের জবাব দেয়ার বিষয়টি জানান। তিনি বলেন, আমরা তাদের দুটি অপশন দিয়েছি। তারা চার রুটের যেকোনো রুটে ফিরতে পারেন। নতুবা নিজেরা চাটার্ড ফ্লাইট নিয়ে আসতে পারে। তবে তার্কিশ ফ্লাইট ঢাকায় আসার বিষয়ে মন্ত্রী কিছু জানে না বলে জানান।

>