মঙ্গলবার , ২৪শে নভেম্বর, ২০২০ , ৯ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ , ৮ই রবিউস সানি, ১৪৪২

হোম > গ্যালারীর খবর > কিশোরগঞ্জ-৪ উপনির্বাচন : পুনঃভোট গ্রহণের দাবি অসীমের

কিশোরগঞ্জ-৪ উপনির্বাচন : পুনঃভোট গ্রহণের দাবি অসীমের

শেয়ার করুন

স্টাফ রিপোর্টার ॥
ঢাকা ঃ কিশোরগঞ্জ-৪ উপনির্বাচনের ৩১টি কেন্দ্রে ‘ভোট ডাকাতির’ অভিযোগ এনে পুননির্বাচনের দাবি করেছেন পরাজিত স্বতন্ত্র প্রার্থী সৈয়দ মোহিতুল ইসলাম অসীম।
গত ৫ জুলাই বেলা সাড়ে ১১টার দিকে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ অভিযোগ করেন।
অসীম বলেন, ‘উপনির্বাচনে ভোট কারচুপি করতে বিপক্ষ প্রার্থী বাইরে থেকে লোক এনে ৩১ কেন্দ্রে মাগুরা উপনির্বাচন স্টাইলে ভোট কারচুপি করেছে। এছাড়াও বাকি ২০টি কেন্দ্রে তার পোলিং এজেন্টদের বের করে দিয়ে ভোট কারচুপি করা হয়েছে।’
এই ভোট ডাকাতিকে ‘নজিরবিহীন’ উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘ক্ষমতাবানদের দপ্তর থেকে সুপারিশ যাওয়ার পর থেকে ভোট ডাকাতি চরম পর্যায়ে পৌঁছায়।’ তার নিশ্চিত জয়কে কারচুপি করে কেড়ে নেয়া হয়েছে কারণ নিজ এলাকা আবদুল্লাহপুর ইউনিয়নের ৮টি কেন্দ্র ছাড়া বাকিগুলোতে ভোট কারচুপি করা হয়েছে বলেও অভিযোগ করেন তিনি।
এছাড়া নির্বাচন পরবর্তী কর্মী সমর্থকদের ওপর নির্যাতনের চিত্র তুলে ধরে অসীম বলেন, ‘বিজয়ী প্রার্থীর ইঙ্গিতে অষ্টগ্রাম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মিজানুর রহমান চৌধুরী তার কর্মী-সমর্থকদের বিরুদ্ধে দুটি মামলা করেছেন। একটিতে ২২ জন, অন্যটিতে ৩১ জন ছাড়াও অজ্ঞাতনামা শতাধিক ব্যক্তিকে জড়িয়ে মামলা করা হয়েছে।’
তিনি অভিযোগ করে বলেন, ‘ওই ওসির বিরুদ্ধে নির্বাচনের আগেই নির্বাচন কমিশনে অভিযোগ করি। কারণ তাকে সরিয়ে না নিলে ওই এলাকায় সুষ্ঠু ভোটগ্রহণের কোনো নিশ্চয়তা ছিল না।’
সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন- মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার কাজী আফতাব উদ্দিন, ঢাকা জজ কোর্টের আইনজীবী তৌহিদুল ইসলাম, সমর্থক আনোয়ার হোসেন ও শিপু প্রমুখ।

>