মঙ্গলবার , ২৪শে নভেম্বর, ২০২০ , ৯ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ , ৮ই রবিউস সানি, ১৪৪২

হোম > গ্যালারীর খবর > কুষ্টিয়া-৪ নির্বাচনী এলাকায় প্রার্থী হচ্ছেন অভিনেতা আহমেদ শরীফ!

কুষ্টিয়া-৪ নির্বাচনী এলাকায় প্রার্থী হচ্ছেন অভিনেতা আহমেদ শরীফ!

শেয়ার করুন

জেলা প্রতিনিধি, কুষ্টিয়া ॥ চলচ্চিত্রের শক্তিমান অভিনেতা আহমেদ শরীফ এখন রাজনীতির ময়দানে । কুষ্টিয়া-৪ (কুমারখালী-খোকসা) নির্বাচনী এলাকা থেকে প্রার্থী হওয়ার লক্ষ্যে গত কয়েক মাস ধরে নিয়মিত জনসংযোগ চালিয়ে যাচ্ছেন তিনি ।

নির্বাচনী এলাকা তাঁর হঠাৎ উপস্হিতি দেখ, এই নিয়ে জনমনে নানা মন্তব্য দেখা দিয়েছে ।

খোকসা জয়ন্তিহাজরা এলাকার ববসায়ী আব্দুর রাজ্জাক বাবু তাঁকে রাজনীতির ময়দানে দেখে জনসন্মুখে বললেন, ‘যাকে জীবনে এলাকাতে দেখি নাই সে নাকি এমপি দাঁড়াবেন, তাঁর এ কিসের আভিনয়, জীবনে কোন দিন তাঁকে আমাদের পাশে পাই নাই’।

একই গ্রামের বৃদ্ধ মজিবর রহমান বললেন, ‘আভিনয়ে ভিলেনের পাট করে আজ হঠাৎ করে এখন আমাদের এলাকার এমপি হতে এসেছে, রাজনীতিটা কোন সিনেমা জগত নয়’।

আমবাড়ীয়া ইউপি’র গোসাইডাংগী গ্রামের অনার্স এর ছাত্র আবু সাইম বললেন, ‘তিনি সিনেমা জগতের মানুষ, তাঁকে আভিনয় জগতেই মানাই। এছাড়া তিনি আমাদের এলাকার কোন মানুষকেই চেনেন না। আর চিনবেই বা কেমন করে, এলাকাতে রাজনৈতিক বা সমাজসেবা কাজে কোন দিন তাঁকে আমি দেখি নাই।’

আগামী জাতীয় সংসদ নির্বাচনে তিনি সংসদ সদস্য প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতার লক্ষ্যে জনসাধারণের সঙ্গে মতবিনিময় নিয়ে এখন ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন।

বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল (বিএনপি) থেকে নির্বাচন করার কথা জানিয়েছেন আহমেদ শরীফ।

এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের রাজনৈতিক জীবনের শুরু থেকেই বিএনপির রাজনীতির সঙ্গে আমার সম্পর্ক। এখনও সেই আদর্শ নিয়েই পথ চলছি। আমি চেষ্টা করে যাচ্ছি, তবে মনোনয়ন দেয়ার এখতিয়ার সম্পূর্ণই দলের।’

উল্লেখ্য, আহমেদ শরীফ বর্তমানে জিসাসের উপদেষ্টার দায়িত্বে আছেন। এর আগে এ সংগঠনটির সভাপতির দায়িত্বও পালন করেন তিনি।

এদিকে কুষ্টিয়া-৪ (কুমারখালী-খোকসা) নির্বাচনী এলাকা ঘুরে জানা গেছে, এই এলাকার সকল স্থরের মানুষের কাছে অতিপ্রিয় নেতা বিএনপির জাতীয় নির্বাহী কমিটির ত্রাণ ও পুনর্বাসন বিষয়ক সম্পাদক কুষ্টিয়া জেলা বিএনপির সভাপতি সাবেক এমপি সৈয়দ মেহেদী আহমেদ রুমী। তবে এই আসনে অভিনেতা আহমেদ শরীফ প্রার্থী হয়ে এলাকার উন্নয়ন ও দলের জন্য কতটুকু কাজ করতে পারবেন সেটাই এখন দেখার বিষয়।

>