শুক্রবার , ২৩শে এপ্রিল, ২০২১ , ১০ই বৈশাখ, ১৪২৮ , ১০ই রমজান, ১৪৪২

হোম > শীর্ষ খবর > গাজীপুর প্যাসেঞ্জার্স কমিউনিটি’র জয়দেবপুর রেলস্টেশনে মানববন্ধন

গাজীপুর প্যাসেঞ্জার্স কমিউনিটি’র জয়দেবপুর রেলস্টেশনে মানববন্ধন

শেয়ার করুন

স্টাফ রিপোর্টার ॥
যাত্রীদের কল্যাণার্থে গাজীপুর প্যাসেঞ্জার্স কমিউনিটির ধারাবাহিক আন্দোলনের অংশ হিসাবে আজ ৬ মার্চ শুক্রবার সকাল ১১টায় জয়দেবপুর রেলস্টেশনে মানববন্ধন করা হয়েছে। মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন গাজীপুর মহানগর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা কাজী আলিমউদ্দিন বুদ্দিন, আওয়ামী লীগের সদস্য মো: আব্দুল হাদী শামীম, ইঞ্জি: সামসুল হক, খালেদ মাহবুব মোর্শেদ, শহিদুল আলমসহ প্রমুখ। কয়েকশত গাজীপুরবাসী মানববন্ধনে শরীক হন।

বক্তারা বক্তৃতায় তাদের দাবী সমূহ উল্লেখ করেন, ক) সকল আন্তঃনগর ট্রেনের যাত্রাবিরতি। খ) তুরাগ ট্রেনে ১৫টি বগি, ২টি বগি নারীদের জন্য সংরক্ষিত। গ) টাঙ্গাইল কমিউটার ট্রেনটির যথাযথ ব্যবহার নিশ্চিত করা। ঘ) অফিস সময় বিবেচনা করে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে তুরাগ ট্রেন সকাল সাড়ে ৮টা এবং টাঙ্গাইল কমিউটার সকাল সাড়ে ৯টার মধ্যে কমলাপুর পৌঁছার ব্যবস্থা করণ এবং ফেরার পথেও অগ্রাধিকার দেয়া। ঙ) জয়দেবপুর স্টেশনে টিকিট কাউন্টার বৃদ্ধি এবং সার্বক্ষণিক টিকিট প্রদানের ব্যবস্থা করা। চ) টাঙ্গাইল কমিউটার ও তুরাগ দুটিকে অলস বসায়ে না রেখে একাধিকবার জয়দেবপুর-কমলাপুর চালানোর ব্যবস্থা করা। চ) জয়দেবপুর স্টেশনের জন্য আন্তঃনগর ট্রেনের সিট সংখ্যা ৪০০ থেকে বাড়িয়ে ২০০০ বরাদ্ধ করা। ছ) জয়দেবপুর স্টেশনকে প্রথম শ্রেণীর আধুনিক সুবিধা সংবলিত স্টেশনে উন্নীত করা। জ) ট্রেনের সময়সূচী নির্ধারণে গাজীপুরবাসীর যৌক্তিক দাবীগুলিকে অগ্রধিকার দেয়া এবং গাজীপুর যাত্রী প্রতিনিধিদের সাথে আলোচনা করে সময়সূচী চুড়ান্ত করা।

বক্তারা বলছেন, গাজীপুর – ঢাকা প্রতিদিন প্রায় ২০-২৫ হাজার যাত্রী নিয়মিত যাতায়ত করে। সড়ক পথের উন্নয়ন কাজ চলমান থাকায় এবং ঢাকা শহরের যানজটের কারণে গাজীপুর-ঢাকা পথে প্রায় ৩-৪ ঘন্টা সময় লাগে আর যেখানে রেলপথে সময় লাগে মাত্র ১ ঘন্টা। ফলে দিন দিন ট্রেন জনপ্রিয়তা হচ্ছে এবং ট্রেনের উপর চাপ বাড়ছে। প্রচন্ড ভীড় উপেক্ষা করে নিরুপায় হয়ে বাদুড় ঝোলা হয়ে মানুষ ট্রেনে যাতায়াত করছে। এরকম অবস্থা থেকে উত্তরণের জন্য দৃষ্টি আকর্ষণ করছেন মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক, যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেল, গাজীপুর সিটি কপোরেশনের মেয়র জনাব জাহাঙ্গীর আলম, গাজীপুর জেলার এমপি মহোদয়গণ, জেলা প্রশাসক, পুলিশ কমিশনারসহ সকলের।

বক্তারা জানান, রাজস্ব আদায়ের দিক থেকে জয়দেবপুর রেল ষ্টেশন সারা বাংলাদেশে ৪র্থ। সেখানে সকল আন্ত:নগর মিলিয়ে মাত্র ৪০০টি আসনের বিপরীতে জয়দেবপুর রেল ষ্টেশনের দৈনিক রাজস্ব ৬ লক্ষ টাকারও বেশী। তারপরও রেল মন্ত্রণালয়ের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের জয়দেবপুর রেলষ্টেশন তথা এই ষ্টেশনের যাত্রীদের সুবিধার প্রতি উদাসীন।
উল্লেখ্য গত ৮ ফেব্রুয়ারি রোটারী ক্লাব অব গাজীপুর এবং গাজীপুর প্যাসেঞ্জার কৃমিউনিটির আয়োজনে জেলা শহরের শহীদ বরকত স্টেডিয়ামের হলরুমে এক সংবাদ সম্মেলনে করে জয়দেবপুর রেলওয়ে জংশনে সকল আন্ত:নগর ট্রেনের যাত্রাবিরতি ও জংশনটির আধুনিকায়নসহ আট দফা দাবি জানিয়েছিল জেলার বিশিষ্টজনরা।

>