রবিবার , ১৭ই জানুয়ারি, ২০২১ , ৩রা মাঘ, ১৪২৭ , ৩রা জমাদিউস সানি, ১৪৪২

হোম > জাতীয় > তরুণদের দক্ষতা পুষ্টিখাতে লাগানোর আহ্বান কৃষিমন্ত্রীর

তরুণদের দক্ষতা পুষ্টিখাতে লাগানোর আহ্বান কৃষিমন্ত্রীর

শেয়ার করুন

স্টাফ রিপোর্টার ॥
তরুণদের তথ্যপ্রযুক্তির দক্ষতা পুষ্টিখাতে কাজে লাগানোর আহ্বান জানিয়েছেন কৃষিমন্ত্রী ড. মো. আব্দুর রাজ্জাক। তিনি বলেন, ‘আমাদের তরুণরা তথ্যপ্রযুক্তি খাতের মতো আধুনিক বিষয়গুলোতে যে দক্ষতা প্রদর্শন করেছে, পুষ্টিখাতেও এটির প্রতিফলন ঘটলে পুষ্টিসমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়ে উঠবে। তাদের এ খাত নিয়ে কাজ করার আহ্বান জানাচ্ছি।’

শনিবার সকালে ‘নিউট্রিশন অলিম্পিয়াড ২০২০’র উদ্বোধন অনুষ্ঠানে ভার্চুয়ালি প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন তিনি। বিড ফাউন্ডেশন, গেইন আইসিটি বিভাগ, নিউট্রিশন ক্লাব ভার্চুয়াল প্ল্যাটফর্মে এবারের অলিম্পিয়াড আয়োজন করেছে।

পুষ্টিনিরাপত্তা নিশ্চিতের জন্য সচেতনতা সবচেয়ে বেশি জরুরি বলে মন্তব্য করে কৃষিমন্ত্রী বলেন, পুষ্টিবিষয়ে সকল জনগণ বিশেষ করে তরুণরা সচেতন হলেই পুষ্টিনিরাপত্তা অর্জন করা সম্ভব হবে। দেশের জনসংখ্যার একটা বিরাট অংশ তরুণ। এই তরুণ জনগোষ্ঠীর শক্তিকে কাজে লাগাতে হবে। পুষ্টিবিষয়ক সচেতনতা বৃদ্ধি, পুষ্টিসম্মত জীবনযাপন অনুশীলন ও কর্মসূচিতে তরুণদের সম্পৃক্ত করতে পারলে পুষ্টিসমৃদ্ধ জাতি গড়ে তোলা সম্ভব হবে।

তিনি বলেন, দেশের মানুষের জন্য পুষ্টিসম্মত ও নিরাপদ খাদ্য নিশ্চিত করতে সরকার বদ্ধপরিকর। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সরকার পুষ্টিনিরাপত্তা নিশ্চিতকরণের জন্য বিভিন্ন সময়োপযোগী পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। পুষ্টিখাতকে বিশেষ প্রাধান্য দিয়ে ‘খাদ্যনিরাপত্তা ও পুষ্টিনীতি ২০২০’ এবং ‘জাতীয় পুষ্টি কর্মপরিকল্পনা ২০১৬-২০২৫’সহ বিভিন্ন সেক্টরাল পলিসির আওতায় বিভিন্ন উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে।

তিনি বলেন, সরকার পুষ্টি সংবেদনশীল কৃষিনীতি ও কর্মসূচি বাস্তবায়নের মাধ্যমে পুষ্টিনিরাপত্তা নিশ্চিতে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে।

‘তরুণদের নেতৃত্বে পুষ্টিসমৃদ্ধ ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণ’ এই থিম নিয়ে দিনব্যাপী অনুষ্ঠিত হচ্ছে ‘নিউট্রিশন অলিম্পিয়াড ২০২০’। কোভিড-১৯ মহামারির কারণে এবার অনলাইনে অনুষ্ঠিত হচ্ছে এই অলিম্পিয়াড। প্রতিবারের মতো এবারও নিউট্রিশন অলিম্পিয়াডে পুষ্টিবিষয়ক বিভিন্ন মজার মজার প্রতিযোগিতা ও কর্মসূচির আয়োজন করা হয়েছে।

অনুষ্ঠানে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব কাজী জেবুন্নেছা বেগমের সভাপতিত্বে কানাডার রাষ্ট্রদূত বেনওয়া প্রিফন্তেইন, পুষ্টি ও খাদ্যবিজ্ঞান ইনস্টিটিউটের অধ্যাপক নাজমা শাহীন, আইসিটি অধিদফতরের মহাপরিচালক আরশাদ আলী, অতিরিক্ত সচিব রুহুল আমিন তালুকদার, বিড ফাউন্ডেশনের সিইও শহীদ উদ্দিন আকবর, গেইনের কান্ট্রি ডিরেক্টর রুদাবা খন্দকার প্রমুখ বক্তব্য রাখেন। মূলপ্রবন্ধ উপস্থাপন করেন বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ভিসি অধ্যাপক এমএ সাত্তার মন্ডল।

>