সোমবার , ২৫শে জানুয়ারি, ২০২১ , ১১ই মাঘ, ১৪২৭ , ১১ই জমাদিউস সানি, ১৪৪২

হোম > জাতীয় > দ্বিপাক্ষিক সিদ্ধান্তেই তুরস্কে বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য নির্মাণ

দ্বিপাক্ষিক সিদ্ধান্তেই তুরস্কে বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য নির্মাণ

শেয়ার করুন

স্টাফ রিপোর্টার ॥
বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকীতে তুরস্কের আঙ্কারায় তার একটি ভাস্কর্য স্থাপন ও ঢাকায় আধুনিক তুরস্কের প্রতিষ্ঠাতা মোস্তফা কামাল আতাতুর্কের ভাস্কর্য নির্মাণের বিষয়ে দ্বিপাক্ষিক অফিসিয়াল সিদ্ধান্তের পরই বাস্তবায়ন করা হবে বলে জানিয়েছেন স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম।

রোববার (৬ ডিসেম্বর) বেলা ১২টায় মন্ত্রণালয়ের নিজ কক্ষে বাংলাদেশে নিযুক্ত তুরস্কের রাষ্ট্রদূত মোস্তফা ওসমান তুরান-এর সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাত শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।

ঢাকা ও তুরস্কে ভাস্কর্য নির্মাণ বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘এ বিষয়টা প্রস্তাব আকারে এসেছে। এ তথ্যটা আমারও জানা আছে। এটার বিষয়ে বাই-লেটারাল (দ্বিপাক্ষিক) অফিসিয়াল ডিসিশন নেয়ার পরেই এটা বাস্তবায়ন হয়ে যাবে।’

রাষ্ট্রদূতের কাছে ভাস্কর্যের বিষয়ে কোনো অগ্রগতি আছে কি না জানতে চাইলে উত্তর দেন স্থানীয় সরকারমন্ত্রী। তিনি বলেন, ‘এটি অফিসিয়ালভাবে কার্যকর হবে। আমরা আজ বিভিন্ন জেনারেল ইস্যুতে আলোচনা করেছি। তিনি আজ সৌজন্য সাক্ষাতে এসেছিলেন। আমাদের সম্পর্ক অত্যন্ত ভালো। কিভাবে একসঙ্গে কাজ করা যায় সে বিষয়ে আলোচনা হয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘টার্কি আমাদের বন্ধুপ্রতীম দেশ। আমরা উভয়ে বিশ্বাস করি পৃথিবীতে প্রতিটি দেশ একে অপরের সঙ্গে সৌহার্দপূর্ণ সম্পর্কের মাধ্যমে মানবতার জন্য কাজ করা অপরিহার্য। সে লক্ষ্যে আমরা উভয় দেশ একমত। সে বিষয়ে আলোচনা হয়েছে। এরপরে আমাদের স্থানীয় সরকার বিভাগের সঙ্গে বর্জ্য ব্যবস্থাপনা, সুয়ারেজ সিস্টেম ও পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতাসহ নাগরিক উন্নতি করার জন্য যেসব অভিজ্ঞতা, সেগুলো আমরা তাদের সঙ্গে শেয়ার করবো, এক্সচেঞ্জ করবো। আমাদের যে অভিজ্ঞতা আছে সেগুলোও টার্কিতে কোথাও কোনো জায়গায় ব্যবহার করা যায় সে ব্যাপারে তারা আগ্রহ প্রকাশ করেছেন। উভয়ের প্রয়োজনে সুনির্দিষ্ট বিষয়ে প্রয়োজনে আবারও আলোচনা করবো।’

তুরস্কের রাষ্ট্রদূত মোস্তফা ওসমান তুরান বলেন, ‘নতুন রাষ্ট্রদূত হিসেবে আমি অন্যান্য মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রীদের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাত করেছি, আজও তেমনই একটি বৈঠকে মিলিত হয়েছি। আজ আমরা দ্বিপাক্ষিক সহযোগিতার বিষয়ে কথা বলেছি। আমাদের দুই দেশের সম্পর্ক অত্যন্ত ভালো। আমরা কিভাবে স্থানীয় সরকার বিভাগে সহযোগিতা বাড়াতে পারি সে বিষয়ে কথা বলেছি। সে বিষয়ে কথা বলতেই আমরা আজ এখানে মিলিত হয়েছি।’

>