রবিবার , ১লা নভেম্বর, ২০২০ , ১৬ই কার্তিক, ১৪২৭ , ১৪ই রবিউল আউয়াল, ১৪৪২

হোম > খেলা > ধোনির মেয়েকে ধর্ষণ হুমকি, কিশোর গ্রেফতার

ধোনির মেয়েকে ধর্ষণ হুমকি, কিশোর গ্রেফতার

শেয়ার করুন

স্পোর্টস ডেস্ক ॥
ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ (আইপিএল) ক্রিকেটের এবারের আসরে খুব একটা ভালো যাচ্ছে না মহেন্দ্র সিং ধোনির পারফরম্যান্স। তার দল চেন্নাই সুপার কিংসও পাচ্ছে না ইতিবাচক ফলাফল। এখনও পর্যন্ত খেলা সাত ম্যাচে মাত্র ২টি জিতেছে চেন্নাই। যার ফলে পয়েন্ট টেবিলে তলানির দিকেই রয়েছে তারা।

ধোনি বা চেন্নাইয়ের এমন পারফরম্যান্সে তার বা তার দলের অন্য কোনো খেলোয়াড়ের পরিবারের সদস্যদের কোনো লেনাদেনা নেই। কিন্তু ক্ষুদ্ধ সমর্থকরা যেনো তাতে থোরাই কেয়ার করে। অতি বৃহৎ জনগোষ্ঠীর দেশ ভারতে খেলোয়াড়দের সমালোচনা থেকে শুরু করে গালিগালাজ করা পর্যন্ত বেশ স্বাভাবিকই ধরে নেয়া হয়।

কিন্তু এবার সবকিছুর মাত্রা ছাড়িয়ে গেছে এক কিশোরের আচরণে। চেন্নাইয়ের বাজে ফলাফলের কারণে ধোনির পাঁচ বছরের শিশুকন্যা জিভা ধোনিকে ধর্ষণের হুমকি দিয়েছেন ১৬ বছরের এক কিশোর। তবে এমন ঘৃণিত কাজ করে রেহাই পাননি সেই কিশোর। মাত্র তিনদিনের মধ্যে ধরা পড়েছেন পুলিশের হাতে।

গত বুধবার কলকাতা নাইট রাইডার্সের বিপক্ষে সহজ একটি ম্যাচে হেরেছিল চেন্নাই। সেই হারের পর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ইনস্টাগ্রামে চেন্নাই অধিনায়ক ধোনির স্ত্রী সাক্ষীর আপলোড করা একটি ছবিতে মি. বিজয় নামের এক ইউজার মন্তব্য করেন, ‘তেরি বেটি জিভাকা রেপ করুঁ?’

সেই মন্তব্য দেখে প্রতিবাদে মুখর হয়ে ওঠেন নেটিজেনরা। এরপরই নড়েচড়ে বসে পুলিশ প্রশাসন। অবশেষে তিনদিনের মাথায় রোববার (১১ অক্টোবর) জিভাকে ধর্ষণ হুমকি দেয়া সেই ১৬ বছরের কিশোরকে গ্রেফতার করেছে গুজরাট পুলিশ। আজ-কালের মধ্যেই তাকে রাঁচি পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হবে।

ধোনির মেয়ে ধর্ষণ হুমকি দেয়া সেই কিশোর দ্বাদশ শ্রেণির শিক্ষার্থী। রোববার গুজরাটের মুন্দ্রা থেকে আটক করা হয় তাকে। কুচ পশ্চিমের পুলিশের এসপি সৌরভ সিং জানিয়েছেন, মূলত জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করা হয়েছিল সেই কিশোরকে। তবে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদেই ইন্সটাগ্রামে ধর্ষণ হুমকির মন্তব্যের কথা স্বীকার করে নিয়েছে সেই কিশোর।

গত সপ্তাহে সাক্ষী ধোনির প্রোফাইলের সেই মন্তব্যের জের ধরে সাইবার আইনে মামলা করেছিল রাঁচি পুলিশ। পরে তারা মি. বিজয় নামের সেই ইউজারের তথ্য সংগ্রহ করে সেগুলো গুজরাট পুলিশের কাছে হস্তান্তর করে এবং সাক্ষীর ইন্সটাগ্রামে কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য করা এই ইউজারকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদের কথা বলে।

রোববার তাকে গ্রেফতারের পর প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদেই সত্যতা পেয়েছে গুজরাট পুলিশ, ধর্ষণ হুমকির মন্তব্যের কথা স্বীকার করেছেন সেই কিশোর। এখন যেহেতু রাঁচিতে এফআইআর করা হয়েছে, তাই সেই কিশোরকে রাঁচি পুলিশের কাছেই হস্তান্তর করা হবে। মামলার পরবর্তী পদক্ষেপ ভারতের কিশোর আইন অনুযায়ী নেয়া হবে।

>