মঙ্গলবার , ২৪শে নভেম্বর, ২০২০ , ৯ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ , ৮ই রবিউস সানি, ১৪৪২

হোম > বিনোদন > বাংলাদেশী আইডল থেকে বাচ্চুর ওয়াকআউট!

বাংলাদেশী আইডল থেকে বাচ্চুর ওয়াকআউট!

শেয়ার করুন

বিনোদন প্রতিবেদক ॥

২৮ জুন টিভিপর্দায় যাত্রা শুরু হয় বাংলাদেশী আইডলের। সবাইকে হতবাক করে প্রথম পর্বেই বিচারকের আসন ছেড়ে বের হয়ে গেলেন গিটার লিজেন্ড আইয়ুব বাচ্চু। শুক্রবার রাত সাড়ে আটটায় এসএ টিভিতে সম্প্রচার হওয়া বাংলাদেশী আইডলের প্রথম পর্বের শেষ মুহূর্তে গিয়ে এক অঘটনের জন্ম নেয়।

জমজমাট এ রিয়েলিটি শো’র সূচনা পর্বটি নানা চমকের মধ্য দিয়ে ভালোভাবেই চলছিল। চার বিচারকের সামনে নিজেদের যোগ্যতা প্রমাণের জন্য পর্যায়ক্রমে অডিশন দিচ্ছিলেন ঢাকা অঞ্চলের প্রতিযোগীরা।

এতে বেশিরভাগ প্রতিযোগীই আপন যোগ্যতায় চার বিচারকের হাত থেকে গোল্ডেন কার্ড বিজয়ী হন। আবার সর্বসম্মতিক্রমে অনেকে বাদও পড়েন। এ পর্বের শেষ প্রতিযোগী হিসেবে বিচারকদের সামনে আসেন শীলা রানী দেবী। তিনি গেয়ে শোনান ক্লাসিক্যাল ঘরানার একটি গান।

সেসময় উপস্থিত তিন বিচারক ফেরদৌসী রহমান, এন্ড্রু কিশোর ও মেহরীন প্রতিযোগীকে বেশ বাহবা দেন। কিন্তু এর মধ্যে খানিক আপত্তি জানান আইয়ুব বাচ্চু। তিনি পাশে বসা ফেরদৌসী রহমানকে বলেন, “বুঝলাম না আমরা বারবার একই টাইপের প্রতিযোগী কেন সিলেক্ট করছি! কী হবে?”

আইয়ুব বাচ্চুর এমন আপত্তির বিপরীতে খানিক খোঁচা দিয়ে ফেরদৌসী রহমান বলেন, “ওকে নিয়ে আমরা গিটার বাজানো আর ব্যান্ডের গান গাওয়া শেখাবো।”

ফেরদৌসী রহমানের এমন কথায় অপমানিত বোধ করে সঙ্গে সঙ্গে বিচারকের আসন ছেড়ে সেট থেকে বের হয়ে যান আইয়ুব বাচ্চু।

যেতে যেতে বাচ্চু বলেন, “এই চেয়ারে বসে আমার আসলে বিশেষ কিছু করার নেই মনে হচ্ছে। এই জায়গা আমার জন্য না।” এ পর্যায়ে বাংলাদেশী আইডলের প্রথম পর্বের ইতি ঘটে।

আইডল সেট থেকে শুরুতেই এমন ওয়াকআউট প্রসঙ্গে আইয়ুব বাচ্চু বলেন, “সত্যি বলতে ফেরদৌসী রহমান আমাদের সর্বজন শ্রদ্ধেয় মা। তার সঙ্গে বিবাদে যাওয়ার কথা স্বপ্নেও ভাবি না। আমি শুধু এই মুহূর্তে একটা কথাই বলতে চাই, এটা কেন এমন হলো সময়ই বলে দিবে।”

এদিকে এ বিষয়ে মুখ খুলতে নারাজ সংগীত ব্যক্তিত্ব ফেরদৌসী রহমান। তিনি শুধু এটুকু বললেন, “বাচ্চু আমার সন্তানতুল্য। মা-ছেলের মধ্যে ঝগড়াঝাটি হতেই পারে। সেটা পরে আবার ঠিক হয়ে যাবে বলে আশা করছি।”

এদিকে আগামী শুক্রবার রাত সাড়ে আটটায় এসএ টিভিতে সম্প্রচার হবে বাংলাদেশী আইডল-এর দ্বিতীয় পর্ব। আইয়ুব বাচ্চু ও ফেরদৌসী রহমান কেন্দ্রিক এই মতবিরোধ এবং জটিলতা প্রসঙ্গে কোনো মন্তব্য করেননি নির্মাতা প্রতিষ্ঠান ডেল্টা বে।

>