সোমবার , ২৩শে নভেম্বর, ২০২০ , ৮ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ , ৭ই রবিউস সানি, ১৪৪২

হোম > Uncategorized > বিদেশীদের কোন প্রস্তাব গ্রহণ করা হবে না: কামরুল

বিদেশীদের কোন প্রস্তাব গ্রহণ করা হবে না: কামরুল

শেয়ার করুন

স্টাফ রিপোর্টার ॥ বিদেশী বন্ধু বা সুশীল সমাজের কোন প্রস্তাব গ্রহণ করা হবে না বলে জানিয়েছেন আইন প্রতিমন্ত্রী এড. কামরুল ইসলাম।

শুক্রবার বেলা ১১টায় জাতীয় প্রেসক্লাবে বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোট আয়োজিত ‘অবাধ-নিরপেক্ষ নির্বাচন ও সংবিধান রক্ষা জননেত্রী শেখ হাসিনা সরকারের অঙ্গীকার’ শীর্ষক আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

এড. কামরুল ইসলাম বলেন,‘তত্ত্বাবধায়ক সরকারের মতো কোনো অযৌক্তিক দাবি নিয়ে কোনো আলাপ-আলোচনা হবে না। এ ধরণের কোনো অযৌক্তিক দাবির কাছে মাথা নতো করার কোনো প্রশ্নই আসে না।’

তিনি বলেন, ‘শেখ হাসিনার নেতৃত্বে নির্বাচনকালীন সময়ে কিভাবে অন্তর্র্বতী সরকার গঠন করা যেতে পারে তা নিয়ে আলাপ-আলোচনা হতে পারে। কিভাবে নির্বাচন কমিশনকে আরও শক্তিশালী করা যায় তা নিয়েও আলোচনা হতে পারে।’

আগামী নির্বাচন শেখ হাসিনার অধীনেই অনুষ্ঠিত হবে উল্লেখ করে আইন প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘আমি চ্যালেঞ্জ দিয়ে বলতে পারি শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সরকার সবার কাছে গ্রহণযোগ্য, স্বচ্ছ এবং নিরপেক্ষ নির্বাচন উপহার দেবে।’

তিনি বিদেশী বন্ধুদের উদ্দেশ্য করে বলেন, ‘আপনারা সে সময় যতো খুশি পর্যবেক্ষক পাঠাতে পারেন। বিগত ৫ বছরে আমারা প্রমাণ করেছি বর্তমান সরকারের অধীনেই অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন করা সম্ভব।’

আদিলুর রহমান ও ড. ইউনুসের বিরুদ্ধে আইনী ব্যবস্থা নেয়া সম্পর্কে তিনি বলেন, ‘আইন তার নিজস্ব গতিতে চলবে। যখন বিদেশী বন্ধুরা আইনকে তার নিজস্ব গতিতে চলতে দেয়ার ক্ষেত্রে বাঁধা সৃষ্টি করে তখন আমি খুব দুঃখ পাই।’

বিএনপি’র মিথ্যা প্রচারণা এবং বিদেশী বন্ধুরা তাদের সাথে তাল মিলিয়ে কথা বলায় বর্তমান সরকার একটা কঠিন সময় পার করছে বলে তিনি উল্লেখ করেন।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে শিল্পমন্ত্রী দিলীপ বড়ুয়া বলেন, ‘শেখ হাসিনার নেতৃত্বেই শান্তিপূর্ণভাবে আগামী নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে ও ক্ষমতা হস্তান্তর করা হবে। বিএনপি-জামায়াত ক্ষমতায় আসলে এদেশে জঙ্গিবাদের চাষ হবে এবং তা প্রতিবেশী রাষ্ট্রসমূহে রপ্তানী করা হবে।’

বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটের সহ-সভাপতি শেখ জাহাঙ্গীর আলমের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন জোটের সিনিয়র সহ-সভাপতি ও অভিনেতা এটিএম শামসুজ্জামান, ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক শাহে আলম মুরাদ, জোটের সাধারণ সম্পাদক অরুন সরকার রানা প্রমুখ।

>