শনিবার , ৩১শে জুলাই, ২০২১ , ১৬ই শ্রাবণ, ১৪২৮ , ২০শে জিলহজ, ১৪৪২

হোম > খেলা > বড় জরিমানা দিয়ে নিষেধাজ্ঞা এড়ালেন অসি অলরাউন্ডার

বড় জরিমানা দিয়ে নিষেধাজ্ঞা এড়ালেন অসি অলরাউন্ডার

শেয়ার করুন

স্পোর্টস ডেস্ক ॥
খেলার মাঠে আম্পায়ারের সিদ্ধান্তই চূড়ান্ত- পাড়ার ক্রিকেট থেকে শুরু করে আন্তর্জাতিক মঞ্চ পর্যন্ত প্রতিনিয়তই মনে করিয়ে দেয়া হয় এ কথা। আম্পায়ার যত বড় ভুল সিদ্ধান্তই দিক না কেন, তা নীরবে মেনে নেয়াই যেকোনো খেলোয়াড়ের অবশ্য কর্তব্য। এর বিপরীত হলেই নেমে আসে শাস্তির খড়গ।

যেমনটা হলো অস্ট্রেলিয়ার অলরাউন্ডার মিচেল মার্শের ক্ষেত্রে। আম্পায়ারের সিদ্ধান্তের প্রতি তীব্র খোভ ও রাগ প্রকাশ করায় বড় জরিমানা গুনতে হয়েছে মার্শকে। তবে বড় জরিমানা দেয়ায় আবার বেঁচে গেছেন নিষেধাজ্ঞার হাত থেকে। যদিও পুরো ঘটনায় তার চেয়ে বড় ভুল ছিল আম্পায়ারেরই।

ঘটনা শনিবার রাতে বিগ ব্যাশ টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটের কোয়ালিফায়ার ম্যাচের। যেখানে মুখোমুখি হয়েছিল পার্থ স্কর্চার্স ও সিডনি সিক্সার্স। ম্যাচে আগে ব্যাট করেছে পার্থ স্কর্চার্স। তারা করে ১৬৭ রান। জবাবে মাত্র ১ উইকেট হারিয়ে ১৭ ওভারেই ম্যাচ জিতে নিয়েছে সিডনি সিক্সার্স।

এই ম্যাচের প্রথম ইনিংসের ১৩তম ওভারের শেষ বলের ঘটনা। স্টিভ ও’কিফের লেগস্ট্যাম্পের বাইরের ডেলিভারিটি খেলার চেষ্টা করেছিলেন মার্শ। কিন্তু তার ব্যাটে-বলে হয়নি। খালি চোখেই বোঝা যাচ্ছিল সেটি একটি ওয়াইড ডেলিভারি। কিন্তু আবেদন করেন ও’কিফ ও উইকেটরক্ষক ফিলিপ।

সবাইকে অবাক করে আবেদনে সাড়া দেন আম্পায়ার স্যাম নোগাস্কি। নিজের চোখকে যেন বিশ্বাস করতে পারছিলেন না মার্শ। আম্পায়ারের এ সিদ্ধান্তে রাগে ফেটে পড়েন তিনি। রাগে-ক্ষোভে নিজের প্যাডেই ব্যাট দিয়ে আঘাত করেন তিনি। পরে ড্রেসিংরুমে ফেরার সময় আম্পায়ারের দিকে অগ্নিদৃষ্টিতে তাকিয়ে থাকেন ৫ বলে ২ রান করা মার্শ।

কিন্তু তার এই প্রতিক্রিয়া সহজভাবে নেয়নি ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া। ম্যাচ রেফারি বব স্ট্র্যাটফোর্ড আম্পায়ারের সিদ্ধান্তের প্রতি অনাস্থা ও তীব্র প্রতিক্রিয়ার কারণে মার্শকে ৫ হাজার ডলার (বাংলাদেশি মুদ্রায় প্রায় সোয়া ৪ লাখ টাকা) জরিমানা করা হয়েছে। নিজের দোষ স্বীকার করে নেয়ায় আর কোনো আনুষ্ঠানিক শুনানির মুখোমুখি হতে হয়নি তাকে, পাশাপাশি পেতে হয়নি নিষেধাজ্ঞাও।

যার ফলে বৃহস্পতিবার পার্থ স্কর্চার্সের ম্যাচে খেলতে পারবেন এ পেস বোলিং অলরাউন্ডার। এক বিবৃতিতে তিনি বলেন, ‘আমার ওপর আসা জরিমানা আমি মেনে নিচ্ছি। আম্পায়ারের সিদ্ধান্তে আমার প্রতিক্রিয়া গ্রহণযোগ্য ছিল না এবং কোনো তরুণ ক্রিকেটারের জন্য এটা আদর্শ উদাহরণ নয়। আম্পায়ারদের জন্য আমার পূর্ণ শ্রদ্ধা রয়েছে। সামনে নিজেকে আরও সংযত রাখব।’

>