বৃহস্পতিবার , ২২শে এপ্রিল, ২০২১ , ৯ই বৈশাখ, ১৪২৮ , ৯ই রমজান, ১৪৪২

হোম > আন্তর্জাতিক > ভারতের জিএসটি সাইটে যুক্ত হলো বাংলা ভাষা

ভারতের জিএসটি সাইটে যুক্ত হলো বাংলা ভাষা

শেয়ার করুন

আন্তর্জাতিক ডেস্ক ॥
ভারতের পণ্য ও পরিষেবা কর (জিএসটি) বিভাগে যুক্ত হলো বাংলা ভাষা। এর আগে হিন্দি, গুজরাটি ভাষায় তাদের জিএসটি জমা দিতে হতো। ‘বাংলার দাবি’ নামক একটি সংগঠনের দাবির প্রেক্ষিতে জিএসটির ওয়েবসাইটে বাংলা ভাষা যুক্ত করা হয়।

এখন থেকে জিএসটি ওয়েবসাইটে ভারতের অন্যান্য ভাষার সঙ্গে দেখা যাবে বাংলা ভাষাও। অনেক দিন ধরেই জিএসটি ওয়েবসাইটে বাংলার ভাষার দাবি জানিয়ে এসেছে ‘বাংলার দাবি’ নামক সংগঠনটি।

বাংলার দাবি সংগঠনের অন্যতম প্রধান সদস্য দীপাঞ্জন বলেন, ‘হিন্দি, গুজরাটি সাম্রাজ্যবাদকে পরাস্ত করে জিএসটি পরিষেবায় এবং ওয়েবসাইটে বাংলা নিয়ে এসেছে ‘বাংলার দাবি’। আমাদের এই সংগঠন বাঙালির জন্য বাংলায় পরিষেবা আদায়ের সংগঠন। জিএসটির ওয়েবসাইটে বাংলা ভাষার আগমন আসলে ‘বাংলার দাবির’ই জয়। বাংলা অন্তর্ভুক্তির জন্য কাউকে ধরতে বাকি রাখিনি।’

তিনি বলেন, ‘জিএসটির মূল জনসংযোগ দফতর, কাউন্সিল এমনকি অর্থ মন্ত্রালয় ও প্রধানমন্ত্রীর দফতরেও বারবার অভিযোগ জানিয়েছি। জিএসটি কাউন্সিলে শেষবার হুমকি দিয়েছিলাম যে বাংলা ভাষায় আমরা জিএসটি জমা দিতে না পারলে, বাঙালি কেন্দ্রকে জিএসটি দেবে না। যাদের ভাষায় পরিষেবা, সেই গুজরাটি, হিন্দুস্তানি, ইংরেজদের থেকেই জিএসটি নিয়ে রাষ্ট্রের খরচ চালাক।’

তিনি আরও বলেন , ‘সব ভালো যার শেষ ভালো তার। এবার থেকে বাংলাসহ ১২টি ভাষায় পরিষেবা পাওয়া যাবে জিএসটিতে। বাঙালি ব্যবসায়ীরা বাংলায় পড়ে জিএসটি জমা দেবে, আর ভাষাগত কারণে ভুল বুঝিয়ে তাদের কেউ প্রতারণা করতে পারবে না।’

সংগঠনের সদ্যদের আবেদন, ‘যেমন বাংলার মাটিতে কোনো পরিষেবায় ঠকলে, পশ্চিমবঙ্গ ক্রেতা সুরক্ষা দফতর সাহায্য করে, তেমনই কোনো পরিষেবায় বাংলা না পেলে, বাংলার দাবি লড়বে। বাংলার দাবির জন্য নিঃস্বার্থে ইংলিশ বা বাংলায় বিভিন্ন সরকারি ও বেসরকারি সংগঠনকে ইমেইলের বয়ান, চেঞ্জ পিটিশন, টুইট ক্যাম্পেইন, আরটিআই, পিআইএল করতে বা ডেপুটেশনে আসতে সময় দিতে পারলে, ইনবক্স করুন। আমার সঙ্গে অফিস থেকে তাড়াতাড়ি বেড়িয়ে, ছুটির দিনটা পরিত্যাগ করে, বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের অফিসে ডেপুটেশন দিতে চাইলেও যোগাযোগ করুন।’

এর আগে ভারতের রেলের টিকিটে বাংলা যুক্ত হয়েছে এই সংগঠনের লড়াইয়ের জেরেই। সেবার দীর্ঘ ৯ মাসের আন্দোলনের পর, একের পর এক ডেপুটেশন, শ’খানেক টুইট, শ’পাঁচেক ফেসবুক পোস্টের পর, রেলের টিকিটে বাংলান ফিরে এসেছিল।

>