রবিবার , ২৫শে অক্টোবর, ২০২০ , ৯ই কার্তিক, ১৪২৭ , ৭ই রবিউল আউয়াল, ১৪৪২

হোম > সারাদেশ > ময়মনসিংহে ট্রাক চালকের সাথে ধস্তাধস্তি, ৫শ মিটার দৌড়ে দুই ডাকাত ধরল পুলিশ

ময়মনসিংহে ট্রাক চালকের সাথে ধস্তাধস্তি, ৫শ মিটার দৌড়ে দুই ডাকাত ধরল পুলিশ

শেয়ার করুন

আমিনুল ইসলাম
ময়মনসিংহ প্রতিনিধি ॥
ময়মনসিংহ জেলার ডাকাত দলের মূলহোতা আবু রায়হান সানি ও সাকিব হাসান রাসেল (২৪) কে গ্রেফতার করেছে ত্রিশাল থানা পুলিশ উপপরিদর্শক এসআই মোঃ আমিনুল হক ও তার সঙ্গীয় ফোর্স।

গত ৪ সেপ্টেম্বর (শুক্রবার) কিলো-৪৪ হাইওয়ে টহল ডিউটিরত অবস্থায় রাত আনুমানিক ৩টার দিকে গোপন তথ্যের ভিত্তিতে ত্রিশাল থানা পুলিশ সাকিব হাসান রাসেলকে গ্রেফতার করে।

গত ৫ই সেপ্টেম্বর (শনিবার) রায়মনি সাকিনস্থ হাসমতের মোড় হইতে দক্ষিণে হাইওয়ে রোডের পশ্চিম পার্শে একটা ট্রাক ইমার্জেন্সি লাইট জ্বলা অবস্থায় হাইওয়ে মেইন রোডে দাড়ানো দেখতে পাইয়া ত্রিশাল থানা এসআই (নিঃ) মোঃ আমিনুল হক সঙ্গীয় ফোর্সসহ রাস্তার বিপরীত পাশে পুলিশ ডিউটি গাড়ি থামিয়ে দেখতে পাই রাস্তার পশ্চিম পাশে ৩/৪ জন লোক ধস্তাধস্তি করছে! চিল্লাপাল্লা হচ্ছে। তিনি পুলিশের সঙ্গীয় ফোর্স সহ দ্রুত দৌড়াইয়া ঘটনাস্থলে এগিয়ে যান। তাহাদেরকে দেখতে পেয়ে ৩/৪ জন ব্যক্তি দ্রুত উত্তর দিকে ঢাকা ময়মনসিংহ মহাসড়কে দৌড়াতে থাকে। তখন উক্ত পুলিশ ফোর্স দেখতে পাই ট্রাক চালকের শরীর রক্তাক্ত। সে বলছিলো, স্যার এরা ডাকাত, এদের ধরেন স্যার, এদের ধরেন! পুলিশেরা তৎক্ষনাৎ দৌড়ে পালিয়ে যাওয়া আসামীদের পিছনে ধাওয়া করে। অনুমান ৫০০ মিটার উত্তর দিকে দৌড়ে আন্তঃ জেলা ডাকাত দলের সদস্য সাকিব হাসান রাসেল (২৪) কে আটক করে। আহত ট্রাক চালক বাবুল মিয়াকে সঙ্গীয় ফোর্সের সহায়তায় প্রথমে ত্রিশাল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ও পরবর্তীতে উন্নত চিকিৎসার জন্য ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করান। দ্রুত আন্তঃ জেলা ডাকাত দলের সদস্য সাকিব হাসান রাসেলকে জিজ্ঞাসাবাদে সে তার নাম ও ঠিকানা প্রকাশ করে। তার সাথে ডাকাতিতে জড়িত আন্তঃ জেলা ডাকাত দলের অন্যান্য সহযোগী আসামীদের নাম ঠিকানা প্রকাশ করে।

অফিসার ইনচার্জ মাহমুদুল ইসলাম পিপিএম এর নির্দেশে এসআই আমিনুল হক ও সঙ্গীয় অফিসার এসআই সজীব ঘোষ, এসআই তোফাজ্জল, এএসআই আলমাস ও সঙ্গীয় ফোর্সের সহায়তায় আন্তঃ জেলা ডাকাত ও মূল হোতা আবু রায়হান সানিকে ভালুকা উপজেলার সীডস্টোর বাজার হইতে গ্রেফতার করতে সক্ষম হন। আসামীদের হেফাজত হইতে ভিকটিম এর ডাকাতি হওয়া নগদ টাকা ও ডাকাতির কাজে ব্যবহৃত স্টীলের সুইচ গিয়ার চাকু উদ্ধারপূর্বক জব্দ করা হয়।

ভিকটিম বাবুল মিয়া বাদী হয়ে এজাহার দায়ের করিলে অফিসার ইনচার্জ ত্রিশাল থানা গ্রেফতারকৃত আন্তঃ জেলা ডাকাত দলের সদস্য ও অন্যান্য পলাতক ডাকাতদের বিরুদ্ধে পেনাল কোড ১৮৬০ এর ৩৯৪/৪১১ ধারায় মামলা রুজু করে মামলাটির তদন্তভার এসআই আমিনুল হকের উপর অর্পণ করেন। ত্রিশাল থানার মামলা নং ০৯, তারিখ ০৫/০৯/২০২০খ্রিঃ।

>