বুধবার , ২৭শে জানুয়ারি, ২০২১ , ১৩ই মাঘ, ১৪২৭ , ১৩ই জমাদিউস সানি, ১৪৪২

হোম > রাজনীতি > রাজপথে নামা ছাড়া মুক্তির অন্যকোনো পথ খোলা নেই: গয়েশ্বর

রাজপথে নামা ছাড়া মুক্তির অন্যকোনো পথ খোলা নেই: গয়েশ্বর

শেয়ার করুন

স্টাফ রিপোর্টার ॥
প্রশাসনের রক্তচক্ষু উপেক্ষা করে রাজপথে নামা ছাড়া মুক্তির অন্যকোনো পথ খোলা নেই বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়। বৃহস্পতিবার (৩১ ডিসেম্বর) সকালে আয়োজিত এক মানববন্ধন থেকে তিনি এ মন্তব্য করেন।

নয়া পল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে নারী ও শিশু অধিকার ফোরামের উদ্যোগে টাঙ্গাইলের গোপালপুর পৌর মহিলা দলের সভানেত্রী হাবিজা বেগমের ওপর হামলা ও সারাদেশে নারী-শিশু ধর্ষণের প্রতিবাদে এই মানববন্ধনের আয়োজন করা হয়।

এসময় গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেন, ‘আগামীকাল ১ জানুয়ারি থেকে আগামী ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত প্রতিদিন যদি আমরা প্রতিবাদ করি তাতেও আজকে যা চলছে তা কখনই কমবে না, উত্তরোত্তর বৃদ্ধি পাবে। সে কারণেই আজকে শুধু প্রতিবাদ আর মানববন্ধনের মধ্য দিয়ে আমাদের মুক্তির পথ খোলা নেই।’

বিএনপি নেতা বলেন, ‘আমাদের মুক্ত হতে হলে লড়াই করতে হবে। সেজন্য আমি বলব, দেশের স্বাধীনতা রক্ষা করার দায়িত্ববোধ থেকে আজকে আমাদেরকে ঠিক করোনার মতো শেখ হাসিনাকে উপেক্ষা করে, প্রশাসনের রক্তচক্ষুকে উপেক্ষা করে আমাদেরকে মাঠে-ময়দানে ছোটাছুটি করতে হবে। তাছাড়া আমাদের পরিত্রাণ পাওয়ার অন্যকোনো পথ নাই।’

গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেন, ‘আসুন সরকারটাকে নামানোর জন্য একটু চেষ্টা করি। চেষ্টা করলে সফলও হতে পারি, না হলে ব্যর্থও হতে পারি। কিন্তু চেষ্টা না করে সফলও হইলাম না ব্যর্থও হইলাম না। আর সবসময় ঈশ্বরের ওপর, আল্লাহর ওপরে ভরসা করলাম- আল্লাহ ছাড়া আর গতি নাই।’

‘স্বামী বিবেকানন্দ বলেছেন, কাপুরুষ এবং মূর্খরা অদৃষ্টের উপরে নির্ভর করে। আর বীর পুরুষরা নিজেদের অদৃষ্ট নিজেরা গড়ে তোলে। বিএনপি এই জাতির অদৃষ্ট। বিএনপিতে বেগম খালেদা জিয়া আছেন, তারেক রহমান আছেন। তাদের নেতৃত্বে আমরাও বীর পুরুষের মতো আমাদের ভাগ্য, দেশের ভাগ্য, গণতন্ত্রের ভাগ্য, নারী ও শিশুদের আগামী দিনের ভাগ্য প্রতিষ্ঠিত করবো।’

এসময় ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির সভাপতি হাবিব উন নবী খান সোহেল বলেন, ‘তারা শেখ হাসিনাকে আজীবনের জন্য প্রধানমন্ত্রী বানাতে চান, বিএনপির কারণে পারছেন না। মধ্যপ্রাচ্যে যেমন শেখ ডাইনেস্টি আছে, এক শেখ যান আরেক শেখ আসেন। বাংলাদেশেও উনারা শেখ ডাইনেস্টি প্রতিষ্ঠা করতে চান।’

তিনি বলেন, ‘নামের সাথে তো শেখ আছে। খালি একটু আইনটা পাস করলেই হয়। বিএনপির কারণে তারা সেই প্রত্যাশা পূরণ করতে পারছেন না।’

তিনি আরো বলেন, ‘বিএনপি করার কারণে হাবিজা বেগমকে জীবন দিতে হয়েছে। আজকে এই সমাবেশ থেকে আমরা বিচার চাইব, বিচার আমরা পাবো না। এই স্বৈরাচারী সরকারের কাছে নারী হত্যার বিচার চেয়ে লাভ নেই, নারী ধর্ষণের বিচার চেয়ে লাভ নেই, শিশুহত্যার বিচার চেয়ে লাভ নেই, কোনো হত্যার বিচার চেয়ে লাভ নেই, কোনো অন্যায়ের বিচার চেয়ে লাভ নেই।’

এই অবস্থা থেকে উত্তোরণে সরকারকে হটানোর আন্দোলনে সকলকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানান তিনি।

নারী ও শিশু অধিকার ফোরামের সদস্য মীর সরফত আলী সপুর সভাপতিত্বে ও সদস্য সচিব নিপুণ রায় চৌধুরীর পরিচালনায় মানববন্ধনে মহানগর দক্ষিণ বিএনপির তথ্য ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক আজিজুল বারী হেলাল, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক আবদুস সালাম আজাদ, সহ-যুব বিষয়ক সম্পাদক মীর নেওয়াজ আলী নেওয়াজ, কৃষকদল নেতা মেহেদী হাসান পলাশ, মহিলা নেত্রী আরিফা সুলতানা রুমা প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

>