শুক্রবার , ২৩শে এপ্রিল, ২০২১ , ১০ই বৈশাখ, ১৪২৮ , ১০ই রমজান, ১৪৪২

হোম > তথ্যপ্রযুক্তি > রাজশাহীর পথে থ্রিজি

রাজশাহীর পথে থ্রিজি

শেয়ার করুন

বাংলাভূমি২৪ ডেস্ক ॥ ঢাকা-চট্টগ্রামের পর এবার টেলিটকের তৃতীয় প্রজন্মের (থ্রিজি) মোবাইল সেবার পরবর্তী গন্তব্য রাজশাহী মহানগরী।
ইতিমধ্যে থ্রিজি সেবা চালু করতে সরকারিভাবে সব প্রস্তুতি শেষ করতে কাজ চলছে। এরই মধ্যে নগরের বিটিসিএল চত্বরে টাওয়ার বসানো হয়েছে।
এ সেবা চালু করতে দরকারি অন্য প্রযুক্তিগুলো বসানো হয়েছে। থ্রিজি নেটওয়ার্ক বসানোর দায়িত্বে থাকা এমএম কর্পোরেশনের বিভাগীয় প্রকৌশলী নাহিদুর রহমান এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।
সরকারি ঘোষণানুযায়ী জুলাই মাসেই বিভাগীয় শহরগুলোতে থ্রিজি চালুর উদ্যোগ থাকলেও বেসরকারি মোবাইল ফোন কোম্পানিগুলোকে লাইসেন্স দেয়ার জটিলতায় এ উদ্যোগ কিছুটা পিছিয়ে গেছে। টেলিটকের সহকারী ব্যবস্থাপক (সিস্টেম অপারেশন) খোরশেদ আলম জানান, এ মুহূর্তে রাজশাহীতে ২.৫ জি নেটওয়ার্ক চালু আছে। থ্রিজি চালুর প্রয়োজনীয় যন্ত্রপাতি বসানো হয়েছে। পুরাতন যন্ত্রপাতিগুলো অন্য বিভাগে পাঠানো হয়েছে। সরকারিভাবে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত পেলেই তারা থ্রিজি চালু করতে পারবেন। এমএম কর্পোরেশনের বিভাগীয় প্রকৌশলী নাহিদুর রহমান জানান, এরই মধ্যে ফাইবার অপটিক্যাল কেবল টানা ও টাওয়ার বসানোর কাজ শেষ হয়েছে। এখন আনুষঙ্গিক কিছু কাজ বাকি আছে। সেগুলো দ্রুত শেষ করে রাজশাহীতে থ্রিজি চালুর উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। ফলে আগামী ২ থেকে ৩ মাসের মধ্যে রাজশাহী মহানগরীর মানুষ থ্রিজির সেবা পাবেন বলে জানা যায়।
প্রসঙ্গত, বাংলাদেশে ২০০৮ সালে এরিকসন থ্রিজি মোবাইল ফোন সেবার পরীামূলক নেটওয়ার্ক স্থাপন এবং ওই বছরের ১০ আগস্ট রাজধানীর একটি হোটেলে এর কার্যকারিতার উদ্বোধন হয়। ২০০৮ সালের বিটিআরসি তৎকালীন চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল (অব.) মনজুরুল আলম ঘোষণা দিয়েছিলেন, ২০০৯ সালের মার্চ মাসে এ প্রযুক্তি বাংলাদেশের সর্বত্রই পাওয়া যাবে। কিন্তু নানান জটিলতার কারণে তা অনেক পিছিয়ে ধীরে ধীরে এগিয়ে যাচ্ছে। এদিকে আগামী ২ সেপ্টেম্বর দেশের অন্যান্য অপারেটরের থ্রিজি নিলামে অংশ নেয়ার কথা। তারা সফলভাবে নিলামে অংশ নিতে পারলে দেশে দ্রুত থ্রিজি সেবা পৌঁছে যাবে।

>