রবিবার , ২৯শে নভেম্বর, ২০২০ , ১৪ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ , ১৩ই রবিউস সানি, ১৪৪২

হোম > Uncategorized > রাজশিশু নিয়ে রাজপ্রাসাদে উইলিয়াম-কেট

রাজশিশু নিয়ে রাজপ্রাসাদে উইলিয়াম-কেট

শেয়ার করুন

বাংলাভূমি২৪ ডেস্ক ॥ নবজাতক রাজশিশুকে নিয়ে হাসপাতাল ছাড়লেন ডিউক অ্যান্ড ডাচেস অব ক্যামব্রিজ প্রিন্স উইলিয়াম ও ক্যাথেরিন। জন্মের একদিন পরেই সন্তানকে নিয়ে সেন্ট ম্যারি’স হসপিটাল ছাড়েন তারা।
ব্রিটেনের স্থানীয় সময় তখন সন্ধ্যা ৭:১৩ মিনিট। রাজশিশুকে নিয়ে হাসপাতালের গেটে আসেন রাজ দম্পতি। এসময় বাইরে অপেমান জনতার দিকে হাত নাড়তে থাকেন উইলিয়াম ও কেট। এক পর্যায়ে কেটের কোল থেকে সন্তানকে নিজের কোলে তুলে নেন উইলয়াম। জনতাকে জানিয়ে দেন, রাজশিশুটি দেখতে তার মা কেটের মতোই হয়েছে। উইলিয়াম শুরুই করেন কৌতুকের মাধ্যমে। বলেন, একজোড়া ফুসফুস নিয়ে জন্মেছে এই ছেলে। বেশ বড়সড়ো, ওজনও আছে বেশ।”
উইলিয়াম বলেন, নাম নিয়ে এখনো কাজ করছি আমরা। দ্রুতই এই শিশুর একটি নাম ঠিক করা হবে।
হালকা নীল রঙে ফোঁটা ফোঁটা প্রিন্টের একটি ড্রেস পরে কেট দাঁড়িয়েছিলেন পাশেই। তিনি বললেন, একটি একটি আবেগঘন, বিশেষ মুহূর্ত। আমি মনে করি প্রতিটি বাবা মাই বুঝতে পারবেন এখন ঠিক কেমন অনুভূতি হচ্ছে আমাদের।”
স্ত্রীর কথায় সায় দিলেন স্বামীও। বললেন, “সত্যিই একটি বিশেষ মুহূর্ত।
সাথে আরো যোগ করলেন, “লেবারে যে এতটা সময় সে নিলো সে কথা বড় হলে তাকে স্মরণ করিয়ে দেবো।” উপস্থিত জনতার উদ্দেশ্যে উইলিয়াম বলেন, “আমি জানি কত দীর্ঘ সময় ধরে সবাই এখানে অপো করে আছেন। এখন আপনারা সবাই ঘরে ফিরে যান। আমরাও ঘরে যাই আর ওকে দেখভাল করি।”
হাসপাতালের বাইরে উইলিয়াম যখন বলছিলেন, “ধন্যবাদ যে শিশুটি তার মায়ের মতো দেখতে হয়েছে।” তখন পাশে থেকে কেট বলে উঠলেন, “না, না, আমি এ বিষয়ে নিশ্চিত হতে পারছি না।”
“নিজের টাক মাথা নিয়েও বেশ কৌতুক করলেন উইলিয়াম। বললেন, ইশ্বরকে ধন্যবাদ ওর মাথায় ভালোই চুল হয়েছে।”
পরে সাংবাদিকদের সঙ্গে সংপ্তি প্রশ্নোত্তরেও রাজ দম্পত্তি তাদের কৌতুক অব্যাহত রাখেন। এসময় কেট বলেন, উইলসকে এরই মধ্যে ন্যাপি পাল্টানোর দায়িত্ব দিয়ে দেওয়া হয়েছে।
লালন পালনে কার কি দায়িত্ব এ নিয়ে এক প্রশ্নে, উইলিয়াম বলেন, আমরা এরই মধ্যে সে কাজ শুরু করেছি। পাশে থেকে কেট বলে ওঠেন, হ্যাঁ প্রথম ন্যাপি পরানোর কাজটি সেই করেছে।
এরই মধ্যে ল্যান্ড রোভারের একটি বেবি সিট নিয়ে আসা হলে উইলিয়াম দ্রুত তাতে তাদের ছেলেকে বসিয়ে দেন। একটু পরেই তারা ঘরের উদ্দেশে রওয়ানা দিতে প্রস্তুত হন।
অল্প সময়ের মধ্যেই রাজশিশুকে নিয়ে কেনসিংটন প্যালেসে পৌঁছান রাজ দম্পত্তি। রাজপ্রাসাদের আশেপাশেও অপেমান ছিলেন বিপুল সংখ্যক নারী-পুরুষ।

>