রবিবার , ২৯শে নভেম্বর, ২০২০ , ১৪ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ , ১৩ই রবিউস সানি, ১৪৪২

হোম > Uncategorized > রুনির ডাবল সেঞ্চুরি

রুনির ডাবল সেঞ্চুরি

শেয়ার করুন

স্পোর্টস ডেস্ক ॥ ১৯৮৫ সালের পর পেরিয়ে গেছে ২৮টি বছর। তারপর এই প্রথম ওল্ড ট্রাফোর্ডের ডাগ আউটে স্যার অ্যালেক্স ফার্গুসনকে ছাড়াই চ্যাম্পিয়ন্স লীগের আসর শুরু করতে নামে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। ডাগ আউটে এসেছেন নতুন কোচ ডেভিড ময়েস। কোচের পরিবর্তন হলেও খেলায় নিজেদের আধিপত্যের কোন কমতি করেনি রেড ডেভিলরা। ওয়েইন রুনির জোড়া ও ম্যানইউ’র হয়ে নিজের ২০০তম গোলে চ্যাম্পিয়ন্স লীগের শুরুটা দারুণ হলো ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের। সঙ্গে ময়েসের চ্যাম্পিয়ন্স লীগের অভিষেকটাও হলো জয় দিয়ে। ঘরের মাঠে তারা ৪-২ গোলে হারিয়েছে জার্মানির বেয়ার লেভারকুসেনকে। রুনির এই জোড়া গোল তাকে নিয়ে গেছে অন্য উচ্চতায়। ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের হয়ে ২০০ পূরণ করলেন তিনি। গোলের ডাবল সেঞ্চুরি করতে তার লেগেছে ৪০৬ ম্যাচ। গোলের সংখ্যায় তার আগে আছেন মাত্র তিনজন-জ্যাক রওলি (২১১), ডেনিস ল (২৩৭) ও কিংবদন্তি ববি চার্লটন (২৪৯)।
এই মওসুমের শুরু থেকেই রুনিকে নিয়ে ছিল ধোয়াশা। দল বদলের ঘূর্ণিপাকে তার প্রতি নজর ছিল চেলসি কোচ হোসে মরিনহোর। নিজেও ক্লাব ছেড়ে দেবেন, ছেড়ে দেবেন করছিলেন। কিন্তু সবকিছু পরিষ্কার করে রুনি এবারও ম্যানইউতে। চ্যাম্পিয়ন্স লীগের প্রথম ম্যাচেই ম্যানইউকে জানান দিলেন যে, তিনি কি চিজ! নিজে করলেন একটি গোল আর বানিয়ে দিলেন আরও একটি। ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে ২২ মিনিটে দারুণ এক ভলিতে ম্যানইউকে এগিয়ে দেন ইংল্যান্ডের স্ট্রাইকার ওয়েইন রুনি। আর খেলায় নিজেদের চতুর্থ গোলে অ্যান্তোনিও ভ্যালেন্সিয়ার করা গোলটি করতেও বল যোগান দেন তিনি।
প্রথমার্ধে রুনির একটি ছাড়া কোন গোল হয়নি। কিন্তু দ্বিতীয়ার্ধের ৫৪ মিনিটে জার্মান দল লেভারকুসেনকে সমতায় ফেরান অধিনায়ক সিমন রলফেস। সমতা অবশ্য বেশিক্ষণ থাকেনি। পাঁচ মিনিট পর অ্যান্তোনিও ভ্যালেন্সিয়ার ক্রসে দারুণ এক ভলিতে রবিন ফন পার্সি এগিয়ে দেন ম্যানইউকে। আর রুনি ম্যানইউ’র হয়ে নিজের ২০০তম গোল করে ৭০ মিনিটে। প্রতিপক্ষের দুই ডিফেন্ডারের ভুলের সুযোগে বল তাদের জালে জাড়িয়ে দেন রুনি। ৭৯ মিনিটে ম্যানইউ’র চতুর্থ ও শেষ গোলটি করেন ভ্যালেন্সিয়া। খেলা শেষ হওয়ার দুই মিনিট আগে লেভারকুসেনের ব্যবধান কমিয়ে ৪-২-এ আনেন ওমার তপরাক।
‘এ’ গ্রুপের দিনের অন্য খেলায় ইউক্রেনের দল শাখতার দোনেৎস্ক ২-০ গোলে হারিয়েছে স্পেনের ক্লাব রিয়াল সোসিয়েদাদকে। শাখতারের জয়ের নায়ক এদিন ব্রাজিল মিডফিল্ডার অ্যালেক্স তেইসেইরা। দলের হয়ে ৬৫ ও ৮৭ মিনিটের গোল দু’টিই আসে তার পা থেকে। স্বাগতিক সোসিয়েদাদ এদিন খেলায় নিজেদের সেভাবে মেলে ধরতেই পারেনি।
ম্যানইউ’র শীর্ষ পাঁচ গোলদাতা
খেলোয়াড় ম্যাচ গোল
ববি চার্লটন ৭৫৮ ২৪৯
ডেনিস ল ৪০৪ ২৩৭
জ্যাক রওলি ৪২৪ ২১১
ওয়েইন রুনি ৪০৬ ২০০
জর্জ বেস্ট ৪৭০ ১৭৯

>