বুধবার , ২৫শে নভেম্বর, ২০২০ , ১০ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ , ৯ই রবিউস সানি, ১৪৪২

হোম > শীর্ষ খবর > লন্ডনে টিউলিপ-ক্রিসের বিয়েতে শেখ হাসিনা

লন্ডনে টিউলিপ-ক্রিসের বিয়েতে শেখ হাসিনা

শেয়ার করুন

বাংলাভূসি ডেস্ক ॥ অবশেষে বিয়ে করলেন বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নাতনি, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বোন শেখ রেহানার মেয়ে বৃটিশ লেবার পার্টি কাউন্সিলার টিউলিপ সিদ্দিক। টিউলিপের বর শ্বেতাঙ্গ সেইন্ট জন পার্সি ক্রিস ক্যামব্্িরজ ইউনিভার্সিটিতে পড়াশুনা শেষ করে বর্তমানে বৃটিশ সরকারি কর্মকর্তা হিসেবে কাজ করছেন।
গত ৭ জুলাই পূর্ব লন্ডনের ওয়েষ্টহামে ইমপ্রেশন ইভেন্ট ভ্যানুতে বিয়ের অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী ও টিউলিপের খালা শেখ হাসিনা। অনুষ্ঠানে বর ও কনের পাশে ছিলেন সজিব ওয়াজেদ জয়, ক্রিস্টিনা ওয়াজেদ, শেখ হাসিনা মেয়ে পুতুল, তার স্বামী, শেখ রেহানা, তার ছেলে রেজওয়ান সিদ্দিক ববি, ছোট মেয়ে রুপরÍী। দুই পরিবারের সদস্য ছাড়াও বিয়েতে আমন্ত্রিত প্রায় ৩ শতাধিক অতিথিদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বৃটিশ লেবার পার্টি এমপি হোম অফিস সিলেক্ট কমিটির চেয়ার কীথ ভাজ, সাবেক সেক্রেটারী অব স্টেট ফর হেলথ ফ্র্যাঙ্ক ডবসন এমপি, শ্যাডো এটর্নি জেনারেল ব্যারিষ্টার এমিলি থর্নব্যারি এমপি, লেবার এমপি সাবেক মিনিষ্টার অব স্টেট ফর ফার্মিং এন্ড এনভারনমেন্ট জিম ফিটজপ্যাট্রিক এমপি, সাবেক চীফ সেক্রেটারী টু দ্যা ট্রেজারী ও লেবার পার্টির শ্যাডো মিনিষ্টার ফর এমপ্লয়মেন্ট স্টিফেন টিমস এমপি, শ্যাডো ডিএফআইডি মিনিষ্টার রোশনারা আলী এমপি প্রমুখ। শফিক সিদ্দিক ও শেখ রেহানা দম্পতির মেয়ে টিউলিপ সিদ্দিকের বিয়েতে যুক্তরাজ্যে নিযুক্ত বাংলাদেশের হাইকমিশনার মিজারুল কায়েস, বৃটেনের বাংলা মিডিয়ার সিনিয়র সাংবাদিক, যুক্তরাজ্য আওয়ামীলীগের সিনিয়র নেতৃবৃন্দসহ পেশাজীবি, রাজনীতিবিদ, ব্যবসায়ী নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা অনুষ্ঠানেস্থলে পৌঁছেন স্থানীয় সময় সন্ধ্যা ৬ টায় ( বাংলাদেশ সময় রাত ১১ টায়)। টিউলিপের বর ক্রিস তখন তাকে পায়ে ধরে সালাম করেন। পরে প্রধানমন্ত্রী নবদম্পতির পাশে বসে উপভোগ করেন জনপ্রিয় কণ্ঠশিল্পী গৌরি চৌধুরী, হিমাংশু গোস্বামীর গান ও ছোট্র শিশুদের নাচ। প্রায় তিনঘন্টা সময় অনুষ্ঠানে অবস্থানকালে প্রধানমন্ত্রী নববধুর সাথে ফটোসেশনে অংশ নেন। পরে তিনি শেখ রেহানাকে সাথে নিয়ে আমন্ত্রিত অতিথিদের টেবিলে টেবিলে গিয়ে তাদের সাথে কুশল বিনিময় করেন। নববধু টিউলিপ ও ক্রিস আমন্ত্রিত অতিথিদের সাথে টেবিলে দেখা করে তাদের খোঁজ খবর নেন। অনুষ্ঠানে উপস্থিত অতিথিদের ধন্যবাদ জানিয়ে ভাঙ্গা ভাঙ্গা বাংলায় বক্তব্য রাখেন টিউলিপের স্বামী ক্রিস। টিউলিপ তার বক্তব্যে সকলের কাছে দোয়া কামনা করেন। সবশেষে প্রধানমন্ত্রী তার বক্তব্যে অনুষ্ঠানে উপস্থিত হওয়ার জন্য সবাইকে ধন্যবাদ জানান। সম্পূর্ণ অনুষ্ঠান পরিচালনায় ছিলেন বিশিষ্ট টিভি উপস্থাপক বুলবুল হাসান ও সৈয়দা সায়েমা আহমেদ।
লেবার পার্টির রাজনীতিবিদ ক্যামডেন রিজেন্টস পার্ক ওয়ার্ডের কাউন্সিলার, ক্যামডেন কাউন্সিলের আর্ট, কমিউনিটিজ এন্ড কালচারাল ক্যাবিনেট মেম্বার টিউলিপ রিজওয়ানা সিদ্দিক দক্ষিণ পশ্চিম লন্ডনের মেরটন কাউন্সিলের মিটচাম এলাকায় ১৯৮২ সালের ১৬ সেপ্টেম্বর জন্মগ্রহন করেন। তিনি বাংলাদেশ, ব্রুনেই, ভারত, সিঙ্গাপুর, স্পেনে বাল্যকাল কাটিয়েছেন। পশ্চিম লন্ডন থেকে ১৯৮৮ সালে তিনি উত্তর লন্ডনে চলে আসেন এবং এ-লেভেল সম্পন্ন করেন। টিউলিপ ইউনিভার্সিটি কলেজ অব লন্ডন হতে ইংরেজী সাহিত্যের উপর আন্ডারগ্র্যাজুয়েট ডিগ্রী এবং কিংস কলেজ অব লন্ডন হতে মাষ্টার্স ডিগ্রী অর্জন করেন। ২০১১ সালে তিনি পলিটিক্স, পলিসি এন্ড গর্ভমেন্টের উপর দ্বিতীয়বারের মতো মাষ্টার্স ডিগ্রী অর্জন করেন। টিউলিপ সিদ্দিক ২০১০ সালের মে মাসে ক্যামডেন রিজেন্ট পার্ক ওয়ার্ডের প্রথম বাঙালি মহিলা কাউন্সিলার নির্বাচিত হন। তিনি অ্যামনেষ্টি ইন্টারন্যাশনাল, ফিলিপ গ্লউড এসোসিয়েশটস, সেভ দ্যা চিলড্রেন, বেথনাল গ্রীন এন্ড বো আসনের সাবেক লেবার এমপি ওনা কিং, টুটিং এলাকার লেবার এমপি ও সাবেক মন্ত্রী সাদেক খান, লেইটন ওয়ানস্টেড এলাকার সাবেক লেবার এমপি হেরী কোহেনের সাথে কাজ করেছেন। ক্যামডেন ও ইজলিংটন এনএইচএস ফাউন্ডেশন ট্রাষ্টের গভর্ণর, কমনওয়েলথ জার্নালিস্ট এসোসিয়েশন ইউকের সদস্য টিউলিপ সিদ্দিকের লেবার লিডার এড মিলিবান্ডের ক্যাম্পেইন ও এমপি টিসা জোয়েলের পলিসি এডভাইজার হিসেবে কাজ করার অভিজ্ঞতা রয়েছে। লেবার পার্টির ইয়ং লেবার অফিসার হিসেবে বর্তমানে কাজ করছেন টিউলিপ। আগামী পার্লামেন্ট নির্বাচনে তিনি তাঁর এলাকা হ্যামস্টেড ও কিলবার্ন আসন থেকে লেবার পার্টির মনোনয়ন পেতে পারেন। এই আসনে বর্তমান এমপি লেবার পার্টির হয়ে ২০ বছর ধরে কাজ করে যাওয়া এক সময়ের বিখ্যাত অভিনেত্রী গ্লেন্ডা জ্যাকসন। টিউলিপের বিপরীতে এই আসন থেকে লেবার পার্টির সোফি লিন্ডেন ও স্যালি গিমসনও মনোনয়ন পাওয়ার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। কিছুদিনের মধ্যেই পার্টির সদস্যরা ভোট দিয়ে প্রার্থী মনোনয়ন করবেন। এদিকে, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আজ সোমবার ( ৮ জুলাই) স্থানীয় সময় সকাল ৯ টা ১০ মিনিটে ( বাংলাদেশ সময় দুপুর ২ টা ১০ মিনিটে) বৃটিশ হাউস অব লর্ডস ও কমন্সের সদস্যদের সঙ্গে হোটেল স্যুটে প্রাত:রাশ বৈঠকে মিলিত হবেন এবং এই দিন বিকেলে তিনি বেলারুশের উদ্দেশ্যে লন্ডন ত্যাগ করবেন।

>