মঙ্গলবার , ২৪শে নভেম্বর, ২০২০ , ৯ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ , ৮ই রবিউস সানি, ১৪৪২

হোম > খেলা > শুরুতেই সিডল ঝড়

শুরুতেই সিডল ঝড়

শেয়ার করুন

স্পোর্টস ডেস্ক ॥ জীবনটা বদলাতে চাও? তাহলে অ্যাশেজ জেতো। ট্রেন্টব্রিজে ছাইযুদ্ধ শুরু হওয়ার একদিন আগে এই মন্তব্য করেছিলেন ইংল্যান্ড অধিনায়ক অ্যালিস্টার কুক। ক্যাপ্টেন কুক বিশ্বাস করেন, অস্ট্রেলিয়ার বিপে সিরিজ জিততে পারলে লোকে চিরদিন মনে রাখবে। আর অস্ট্রেলিয়া? চরম দুঃসময়ের মধ্য দিয়ে যাচ্ছে একসময়ের দাপুটে দলটি।
অ্যাশেজ সিরিজের প্রথম বল হওয়ার মাত্র ১৬ দিন আগে কার্কদের দায়িত্ব নিয়েছেন লেম্যান। গুরুদায়িত্ব সন্দেহ নেই। এই পটভূমিতে বুধবার ট্রেন্টব্রিজ টেস্ট শুরু হওয়ার মধ্য দিয়ে বহুল প্রতীতি ইংল্যান্ড-অস্ট্রেলিয়া সম্মুখ সমরও শুরু হল। টসে জিতে ইংল্যান্ড অস্ট্রেলিয়াকে ফিল্ডিংয়ে পাঠায়। কুক অবশ্য নিজের জীবন বদলানোর প্রথম কাসে অনুত্তীর্ণ শিার্থী। অপয়া ১৩-র শিকার হয়ে পত্রপাঠ বিদায়। ইংল্যান্ড তখন ১/২৭। এরপর রুট ও ট্রট মিলে টানছিলেন স্বাগতিকদের। ৫১ রানের সংযোগের পর বিচ্ছিন্ন হয় এই জুটি রুটের (৩০) আউট হওয়ার মধ্য দিয়ে। ট্রট হাফসেঞ্চুরি থেকে দুই রান দূরে রুটকে অনুসরণ করেন। ব্রিটিশ মিডিয়া যাকে নিয়ে প্রচণ্ড মাতামাতি করেছে, সেই কেভিন পিটারসেন ১৪-তেই আউট। রুট, ট্রট ও পিটারসেনÑ তিনজনেরই উইকেট নেন পিটার সিডল। প্রথমদিনের অস্ট্রেলীয় নায়ক। লাঞ্চের আগেই স্বাগতিকরা দুই ওপেনারকে হারায়।
অস্ট্রেলিয়ার অনভিজ্ঞ দলটিকে অ্যাশেজ সফরে আসা সর্বকালের দুর্বলতম দল বলা হচ্ছে। সর্বশেষ ১৯৮৯ সালে এমন আন্ডারডগ বিবেচিত হয়েছিল অসিরা। সেবার ইংল্যান্ডকে ৪-০ ব্যবধানে উড়িয়ে দিয়ে অ্যাশেজ পুনরুদ্ধার করেছিল তারা। প্রথম টেস্টের শুরুটা দেখে এবারও তার পুনরাবৃত্তির সম্ভাবনা উড়িয়ে দেয়া যাচ্ছে না। দলে গ্লেন ম্যাকগ্রা কিংবা ব্রেটলির মতো গতি তারকা না থাকলেও গতির ঝড়ে ইংল্যান্ডকে ঠিকই কাঁপিয়ে দিয়েছে অস্ট্রেলিয়া। শুরু করেছিলেন প্যাটিনসন। এরপর টানা পাঁচ উইকেট নিয়ে স্বাগতিকদের ব্যাকফুটে ঠেলে দিয়েছেন পিটার সিডল। চা বিরতি পর্যন্ত ৫২ ওভারে ইংল্যান্ডের সংগ্রহ ১৮৫/৬। বেয়ারস্টো ৩২ ও ব্রড ১ রানে ব্যাট করছিলেন। প্রথম সেশনে তিন উইকেট হারানো ইংল্যান্ডকে আর ঘুরে দাঁড়াতে দেননি সিডল। ১২৪ রানে চার উইকেট হারানোর পর পঞ্চম উইকেটে ৫৪ রানের জুটি গড়েন বেল (২৫) ও বেয়ারস্টো। বেলকে ওয়াটসনের ক্যাচ বানিয়ে এই জুটি ভাঙার পর প্রিয়রকে (১) দ্রুত ফিরিয়ে পাঁচ উইকেট পূর্ণ করেন সিডল।

>