বৃহস্পতিবার , ৩রা ডিসেম্বর, ২০২০ , ১৮ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ , ১৭ই রবিউস সানি, ১৪৪২

হোম > অর্থ-বাণিজ্য > সফটওয়্যার ত্রুটির প্রতিবেদন চেয়েছে বিএসইসি

সফটওয়্যার ত্রুটির প্রতিবেদন চেয়েছে বিএসইসি

শেয়ার করুন

স্টাফ রিপোর্টার ॥ ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) সফটওয়্যার ত্রুটির বিষয়ে প্রতিবেদন তলব করেছে নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন। ইতিমধ্যে ডিএসই’র সফটওয়্যারের ত্রুটি-বিচ্যুতি সম্পর্কে বিএসইসিকে অবহিত করা হয়েছে এবং গত মাসের ট্রেডিং সিস্টেমে চিহ্নিত সমস্যাগুলো প্রতিবেদন আকারে আগামী ৭ দিনের মধ্যে দাখিলের নির্দেশ দিয়েছে কমিশন। বুধবার বিএসইসি’র প থেকে এ সংক্রান্ত একটি চিঠি ডিএসই’র প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা স্বপন কুমার বালা ও সভাপতি আহসানুল ইসলাম টিটোকে দেয়া হয় বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে। চিঠিতে উল্লেখ করা হয়, গত ১৯শে জুন কমিশনের ৪৮০তম সভায় বিষয়টি উত্থাপিত হয় এবং বিষয়টি নিয়ে বিষদ আলোচনা হয়েছে। ডিএসই’র ট্রেডিং সিস্টেম এমএসএ প্লাস সফটওয়্যারের ত্রুটি-বিচ্যুতির বিষয়ে বিএসইসি তদন্ত করেছে। তদন্ত রিপোর্টে যেসব সমস্যা পাওয়া গেছে তা দূরীকরণে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে বলা হয়েছে। আর আগের মাসগুলোতে ট্রেডিং সিস্টেমের চিহ্নিত সমস্যাগুলো আগামী ৭ দিনের মধ্যে প্রতিবেদন আকারে দাখিলের নির্দেশ দেয়া হয়েছে। এর আগে কমিশনে সংঘটিত ৪৮২তম সভায় বিএসইসি’র তদন্ত প্রতিবেদনে উদ্ঘাটিত ডিএসই’র ট্রেডিং সিস্টেমে  ব্যর্থতার বিষয়ে কমিশন উদ্বেগ প্রকাশ করেছে। এ সিস্টেমের ব্যর্থতা বা সমস্যা দূর করার জন্য প্রয়োজনীয় পদপে নিতে ডিএসইকে অবহিত করা হবে। এখন থেকে প্রতিমাসের প্রথম সপ্তাহের মধ্যে এর আগের মাসে সংঘটিত ট্রেডিং সিস্টেমের সমস্যাগুলো চিহ্নিত করতে হবে। পরবর্তীতে তা সমাধান করে গৃহীত পদেেপর একটি প্রতিবেদন কমিশনে দাখিল করতে হবে বলে সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। এ বিষয়ে এমএসএ প্লাস সফটওয়্যার সম্পর্কিত গঠিত কমিটির এক সদস্য বলেন, এমএসএ প্লাস সফটওয়্যার নিয়ে বিএসইসি যে তদন্ত করেছে এবং এ সংক্রান্ত তদন্ত প্রতিবেদন তৈরি করেছে তা আমার জানা নেই।
কারণ ওই সময় আমি ডিএসই’র সভাপতি ছিলাম না। তাই এ বিষয়ে আমি তেমন কিছু বলতে পারছি না। তবে এমএসএ প্লাসের অসঙ্গতি নিয়ে বিএসইসিতে থেকে যদি কোন নির্দেশনা আসে তবে সেটা আমরা খতিয়ে দেখবো। আর বিএসইসি থেকে এ বিষয়ে কোন ধরনের চিঠি পাঠানো হয়েছে কিনা তা আমার জানা নেই। যদি চিঠি এসে থাকে তাহলে ডিএসই’র সিইও প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেবে। বিএসইসি’র তদন্ত প্রতিবেদন সূত্রে জানা গেছে, ডিএসই ট্রেডিং সিস্টেম এমএসএ প্লাস সফটওয়্যারের কারিগরি ত্রুটি-বিচ্যুতিতে পুরো বাজারের লেনদেনে বড় ধরনের বিপর্যয়ের আশঙ্কা রয়েছে। এতে লাখো বিনিয়োগকারী তিগ্রস্ত হতে পারেন বলে মনে করছে বিএসইসি। তদন্ত প্রতিবেদনে উল্লিখিত সমস্যগুলো হলো- এমএসএ প্লাস সফটওয়্যারের ত্রুটি ও দুর্বলতা, সবার্ধিক ধারণ মতার অভাব, নতুন কোম্পানির লেনদেনের শুরুর দিন বাই-সেল অর্ডার সম্পন্ন না হওয়া, ব্রোকারেজ হাউসে লেনদেনে সমস্যা, ক্যামব্রিজ রিপ্রেজেনটেটিভের (সফটওয়্যার নির্মাতা প্রতিষ্ঠান) কারিগরি ও দতাগত অজ্ঞতা এবং ডিএসই’র সাবধানতার অভাব রয়েছে। এছাড়া সফটওয়্যারের সমস্যার জন্য ডিএসই নির্মাতা প্রতিষ্ঠানকে চুক্তি অনুযায়ী অর্থ পরিশোধ স্থগিত রেখেছে বলে প্রমাণ পাওয়া গেছে।

>