মঙ্গলবার , ২৪শে নভেম্বর, ২০২০ , ৯ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ , ৮ই রবিউস সানি, ১৪৪২

হোম > Uncategorized > সমঝোতা স্মারক সই করছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক

সমঝোতা স্মারক সই করছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক

শেয়ার করুন

বাংলাভূমি২৪ ডেস্ক ॥ আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিলের (আইএমএফ) চাপে রাষ্ট্রায়ত্ত চার বাণিজ্যিক ব্যাংকের সঙ্গে নতুন করে সমঝোতা স্মারক (এমওইউ) সই করতে যাচ্ছে বাংলাদেশ ব্যাংক। কেন্দ্রীয় ব্যাংকের ডায়াগনস্টিক প্রতিবেদন আমলে নিয়ে চলতি মাসেই এমওইউ সই হবে, বছরের বাকি সময়ের জন্য যা প্রযোজ্য হবে।

রাষ্ট্রায়ত্ত সোনালী, জনতা, অগ্রণী ও রূপালী ব্যাংকের সঙ্গে প্রতি বছরই এমওইউ সই করে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। বাংলাদেশ কৃষি ব্যাংক ও রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন ব্যাংকের সঙ্গেও অর্থবছর হিসাবে এমওইউ করা হয়। এর মাধ্যমে বিভিন্ন শর্ত মেনে ব্যাংকগুলোকে কার্যক্রম পরিচালনার নির্দেশনা দেয় কেন্দ্রীয় ব্যাংক।

তবে আইএমএফের বর্ধিত ঋণ সুবিধার শর্ত মেনে সেপ্টেম্বরের মধ্যেই এ চার ব্যাংকের সঙ্গে এমওইউ করতে হচ্ছে কেন্দ্রীয় ব্যাংককে। বিশেষ ডায়াগনস্টিক প্রতিবেদন আমলে নিয়েই এমওইউ সই করতে হবে।

২০১২ সালের ডিসেম্বর ভিত্তিতে চার ব্যাংকের ডায়াগনস্টিক প্রতিবেদন তৈরি করে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। প্রতিবেদনে সোনালী ও জনতা ব্যাংকের পরিস্থিতিকে অ্যালার্মিং বা উদ্বেগজনক এবং অগ্রণী ও রূপালী ব্যাংকের পরিস্থিতিকে কনসিডারেবল বা বিবেচনাযোগ্য হিসেবে উল্লেখ করা হয়। যদিও বর্তমান সময়ে পরিস্থিতির আরো অবনতি হয়েছে।

নতুন করে এমওইউ সইয়ের জন্য এরই মধ্যে কাজ শুরু করেছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। নতুন এমওইউতে চার ব্যাংকের সব শাখাকে নেটওয়ার্কের আওতায় এনে কার্যক্রম পরিচালনার শর্ত দেয়া হবে। পাশাপাশি লিখিত ঋণ নীতিমালা ও তা পরিপালনের শর্তও থাকবে। এছাড়া সময়ে সময়ে এ ঋণ নীতিমালা হালনাগাদ করতে হবে ও মেনে চলার তথ্য পাঠাতে হবে। সর্বোপরি ব্যাংকগুলোর অভ্যন্তরীণ নিরীক্ষা সঠিক সময়ে সম্পন্ন করে বহিঃনিরীক্ষক দিয়ে তিন মাসের আর্থিক প্রতিবেদন তৈরি করতে হবে।

নিয়ম অনুযায়ী, বছর শেষ হওয়ার তিন মাসের মধ্যে আর্থিক প্রতিবেদন তৈরি করতে হয়। এতে ব্যর্থ হলে কেন্দ্রীয় ব্যাংক তিন দফায় সময় বাড়িয়ে ছয় মাস পর্যন্ত করতে পারে। কিন্তু সোনালী, অগ্রণী ও জনতা ব্যাংক ছয় মাসেও প্রতিবেদন তৈরি করতে পারেনি। এ কারণেই নতুন করে এসব শর্ত বেঁধে দেয়া হচ্ছে।

বর্তমান শর্ত অনুযায়ী, ব্যাংক চারটি গত বছরের তুলনায় ১০ শতাংশ বেশি ঋণ বিতরণ করতে পারবে। তবে নতুন এমওইউতে এ শর্ত শিথিল করা হতে পারে। ঘোষিত মুদ্রানীতির লক্ষ অর্জনেই এ শর্তটি শিথিল করা হতে পারে বলে জানা গেছে।

বাংলাদেশ ব্যাংকের ঊর্ধ্বতন এক কর্মকর্তা এ প্রসঙ্গে বণিক বার্তাকে বলেন, আইএমএফের পরামর্শ মেনেই নতুন করে এমওইউ সই হতে যাচ্ছে। মুদ্রানীতিতে ঘোষিত ঋণ প্রবৃদ্ধি অর্জনে ঋণ বিতরণের শর্ত কিছুটা নমনীয় করা হতে পারে।

>