রবিবার , ২৮শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ , ১৫ই ফাল্গুন, ১৪২৭ , ১৫ই রজব, ১৪৪২

হোম > Uncategorized > সমস্যার আবর্তে মহিলা কাব ক্রিকেট

সমস্যার আবর্তে মহিলা কাব ক্রিকেট

শেয়ার করুন

স্পোর্টস রিপোর্টার ॥ এবারও ১২টি দলকে নিয়ে লীগ শুরু হয়েছিল ৩০শে জুন। কিন্তু শুরুর প্রথম দিনই বৃষ্টির কারণে বাতিল হয়েছে ম্যাচ। এরপর ম্যাচের সময় পরিবর্তন করে ৪ঠা জুলাই নির্ধারণ করা হয়। তবে বৃষ্টির বাধা এড়াতে পারেনি দলগুলো। বৃষ্টির কারণে বাতিল হয়েছে মোহামেডান ও শেখ জামালের গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচ সহ গতকাল পর্যন্ত ৮টি ম্যাচ। এই মওসুমে খেলা প্রসঙ্গে মোহামেডানের কোচ ইমতিয়াজ হোসেন পিলু বলেন, ‘আসলে এটি ক্রিকেট লীগ খেলার মওসুম না। এই সময়ে খেলা দেয়ার মানে বুঝি না। বৃষ্টিতে ক্রিকেট খেলা আর ম্যাচ শেষ করতে পারা খুবই কঠিন। বলতে  গেলে এই আসরে এটি ছিল আমাদের অন্যতম সমস্যা। বৃষ্টির জন্য এই পর্যন্ত কতগুলো ম্যাচ বাতিল হয়েছে।’ তবে বৃষ্টির পানির অভাব না হলেও মহিলা ক্রিকেটারদের খাওয়ার পানির অভাব চলছে চরমে। ১২টি দলের ৯টি মহিলা কাবের ক্রিকেটারই আশ্রয় নিয়েছে ধানমন্ডির সুলতানা কামাল মহিলা ক্রীড়া কমপ্লেক্সে। কিন্তু সেখানে চরম পানির সঙ্কটে পড়ে মেয়েরা।
এবার কাব ক্রিকেটের সবচেয়ে দামি মহিলা ক্রিকেটার, জাতীয় দল ও মোহামেডানের অধিনায়ক সালমা খাতুন অভিযোগ করে এই আসরের মাঠগুলো নিয়ে। মিরপুর সিটি কাব মাঠ ও ঢাকা ইউনিভার্সিটির মাঠ বৃষ্টি হলেই হাঁটু পানি জমে যায়। আর আবাহনীর মাঠও যে খুবই ভাল তা নয়। এই বিষয়ে সালমা খাতুন বলেন, ‘আসলে আমি বুঝতেই পারছি না কেন আমাদের এমন মাঠে খেলতে দেয়া হলো। দেখেন আমাদের ঢাকা ইউনিভার্সিটির মাঠে খেলতে দেয়া হয়েছে। সেখানে বৃষ্টি হলেই হাঁটু পর্যন্ত পানি জমে যায়। এছাড়াও অন্য দুটি মাঠেরও একই অবস্থা। জানি না ফাইনাল কোথায় হবে। আমরা কি ফাইনাল ম্যাচটা মিরপুর শের-ই বাংলা স্টেডিয়ামে আশা করতে পারি না?’
অন্যদিকে এ বিষয়ে মোহামেডানের কোচ অভিযোগ করেও লাভ হয়নি জানিয়ে বলেন, ‘আমরা সুলতানা কামাল কমপ্লেক্সের কর্তৃপরে কাছে অভিযোগ জানিয়েছি। এখানে আমাদের মেয়েরা পানির সমস্যায় ভুগছে। কিন্তু কমপ্লেক্সের কর্তৃপরে প থেকে সমস্যা সমাধান না করে জানানো হয় কাবগুলোকেই মেয়েদের পানির ব্যবস্থা করে দিতে হবে ট্যাঙ্কে করে। সেখানে কমপ্লেক্সে কোন কিছু করতে পারবে না।’মেয়েদের পানি সমস্যা নিয়ে বিসিবি’র মহিলা বিভাগের এক্সজিকিউটিভ মুন্নি বলেন, ‘আসলে পানি সমস্যা দেখা বিসিবি’র বিষয় না। এই গুলো কাবগুলোকেই দেখতে হবে।’
পানি ছাড়াও মহিলা কাব ক্রিকেটের অন্যতম অভিযোগ কোন ম্যাচ ফি দেয়া হয় না মহিলা ক্রিকেটারদের। একমাত্র মোহামেডানের মেয়েরা এই লীগে পাচ্ছে উচ্চ মূল্য। তবে অন্য দলের অবস্থা খুবই করুণ। অভিযোগ রয়েছে অনেক কাবই মেয়েদের দিচ্ছে সর্বনিম্ন ৫ হাজার টাকা। এর মধ্যে কয়েকটি কাব তাদের অর্ধেক টাকা ক্রিকেটারদের পরিশোধ করলেও অভিযোগ বেশির ভাগ কাব এখনও মেয়েদের টাকা পরিশোধ করেনি। যে কারণে ম্যাচ ফি না থাকায় মেয়েদের পড়তে হচ্ছে নানা মুখী সমস্যায়। এই অভিযোগও রয়েছে নামমাত্র টাকায় খেলানো হচ্ছে মেয়েদের। এই বিষয়ে বিসিবিকেই বড় ভূমিকা রাখতে হবে বলে মনে করেন অনেক ক্রিকেটার।  মোহামেডান কাবের মহিলা ক্রিকেটকে ৫ বছর ধরে নেতৃত্ব দিচ্ছেন সালমা। এই নিয়ে তিনবার শিরোপাও এনে দিয়েছেন ৩ বার। তিনি বলেন, ‘মোহামেডান কাব ভাল টাকা দিচ্ছে। শুনেছি অন্য কয়েকটি বড় কাবও ভাল টাকা দিয়ে ক্রিকেটার নিয়েছে। কিন্তু এখানে অনেকগুলো কাব আছে তারা অল্প টাকায় সাধারণ দল করেছে। তাদের হয়তো ফাইনাল বা সেমিফাইনাল খেলার ইচ্ছা নেই। তবে আমি মনে করি এই ভাবে খেলায় মান নষ্ট হয়। কাব করলে আসলে ভালভাবেই করা উচিত। এতে করে মেয়েদের ক্রিকেটটাও এগিয়ে যাবে।’
কাব ক্রিকেটে বড় দল হিসেবে পরিচিত আবাহনী গত  দুই বছর ধরে রহস্যময় কারণে টুর্নামেন্টে অংশ নিচ্ছে না। নাম প্রকাশ না করার শর্তে এক কর্মকর্তা বলেন আবাহনীর মতো দল আসলে মেয়েদের ক্রিকেটাররা মোহামেডানের মতো টাকা পেত। তারা না থাকায় মহিলা কাব ক্রিকেটে তেমন কোন প্রতিযোগিতাও থাকে না।

>