সোমবার , ১লা মার্চ, ২০২১ , ১৬ই ফাল্গুন, ১৪২৭ , ১৬ই রজব, ১৪৪২

হোম > জাতীয় > সিরাজগঞ্জে পুলিশ-জামায়াত ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া, বসতবাড়ি ভাংচুর

সিরাজগঞ্জে পুলিশ-জামায়াত ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া, বসতবাড়ি ভাংচুর

শেয়ার করুন

সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি ॥ সিরাজগঞ্জে পুলিশের সঙ্গে জামায়াত কর্মীদের ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া, মহাসড়কে যানবাহন ভাংচুরসহ বিচ্ছিন্ন ঘটনার মধ্যদিয়ে জামায়াতের ডাকা হরতাল পালিত হচ্ছে। এদিকে, কামারখন্দ উপজেলার ভদ্রঘাট ইউনিয়নের চৈরগাতিতে হরতাল সমর্থকরা আওয়ামী লীগ সমর্থকদের একটি বাড়িতে হামলা চালিয়ে ৪টি বসতঘর ভাংচুর করে এবং বাধা দিতে গেলে অন্তত ৭/৮ জনকে পিটিয়ে গুরুতর আহত করেছে। পুলিশ ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, সকাল সাড়ে ৯টার দিকে মহাসড়কে পুলিশের ধাওয়া খেয়ে ৪০/৫০জন জামায়াত-শিবিরের নেতাকর্মী চৈরগাতি গ্রামের হযরত আলীর বাড়িতে ঢুকে পড়ে। সেখানে তারা হামলা চালিয়ে ৪/৫টি বসত ঘর ভাংচুর করে। এতে বাধা দিতে গেলে হামলাকারীরা হযরত আলীর ছেলে লিটন (২৮),  লিমন (২৫), আব্দুল মান্নানের ছেলে আলমগীর হোসেন (৩০), নুর মোহাম্মদের ছেলে গোলাম মোস্তফা (২৮), আলতাফ হোসেনের স্ত্রী আঞ্জুয়ারা বেগম (৪০) কে পিটিয়ে গুরুতর আহত করে। এ বিষয়ে কামারখন্দ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আমিনুল ইসলাম জানান, বসতবাড়ি ভাংচুরের কথা শুনেছি। কিন্ত মহাসড়কে দায়িত্ব পালন করার কারনে ওই বাড়িতে যাওয়া সম্ভব হয়নি।
হরতালের শুরুতেই ভোরে বঙ্গবন্ধু সেতু পশ্চিমপাড় মহাসড়কের কামারখন্দ উপজেলার নলকার কাশেম মোড় ও বানিয়াগাতী এলাকায় মহাসড়ক অবরোধ করে জামায়াত শিবির কর্মীরা। এ সময় তারা দুটি গাড়ি ভাংচুর করে। সংবাদ পেয়ে পুলিশ সেখানে পৌছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করলে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষ বাধে। প্রায় ঘন্টাব্যাপী ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া ও ইটপাটকেল নিক্ষেপের ঘটনা ঘটে। এসময় পুলিশ অন্তত ৫০ রাউন্ড টিয়ারশেল ও রাবার বুলেট নিক্ষেপ করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে। ঘটনাস্থল থেকে ৩ শিবিরকর্মীকে আটক করা হয়েছে।
এ বিষয়ে বঙ্গবন্ধু সেতু পশ্চিমপাড় থানার উপ-পরিদর্শক আসলাম উদ্দিন ১১টার দিকে জানান, এখনও আশপাশের পাড়া-মহল্লার অলিগলি থেকে বের হয়ে জামায়াত-শিবিরকর্মীরা মহাসড়কের বিভিন্ন স্থানে প্রতিবদ্ধকতা সৃষ্টির চেষ্টা করছে। তবে পুলিশ টহল অব্যহত থাকায় বর্তমানে মহাসড়কের অবস্থা স্বাভাবিক রয়েছে।
অপরদিকে, সকালে সিরাজগঞ্জ-নগরবাড়ি মহাসড়কের উল্লাপাড়ার বোয়ালিয়া ও পূর্বদেলুয়া বাজারে মহাসড়ক অবরোধ করে জামায়াত-শিবির কর্মীরা। এ সময় তারা ৩/৪টি গাড়ি ভাংচুর করে। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছলে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া ও ইটপাটকেল নিক্ষেপের ঘটনা ঘটনা ঘটে। এসময় পুলিশ প্রায় ৩০ রাউন্ড রাবার বুলেট ও টিয়ারশেল নিক্ষেপ করে। ঘটনাস্থল থেকে ২ শিবিরকর্মীকে আটক করা হয়েছে।
এছাড়াও ভোরে সিরাজগঞ্জ-কাজিপুর আঞ্চলিক সড়কের সমাজকল্যান মোড় এলাকায় রাস্তায় ইট ফেলে সড়ক অবরোধের চেষ্টা করে জামায়াতকর্মীরা। পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌছলে তারা সটকে পড়ে। শহরের অধিকাংশ দোকান পাট ব্যাবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে। রিক্সা-ভ্যান অটোরিক্সা ও সিএনজি চলাচল স্বাভাবিক রয়েছে। শহরের  গুরুত্বপূর্ন স্থানে অতিরিক্ত পুলিশ ও র‌্যাব মোতায়েন রয়েছে।

>