শনিবার , ৫ই ডিসেম্বর, ২০২০ , ২০শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ , ১৯শে রবিউস সানি, ১৪৪২

হোম > অর্থ-বাণিজ্য > হরতালের নামে চলছে অশুভ প্রতিযোগিতা: এফবিসিসিআই

হরতালের নামে চলছে অশুভ প্রতিযোগিতা: এফবিসিসিআই

শেয়ার করুন

স্টাফ রিপোর্টার ॥ ফেডারেশন অব বাংলাদেশ চেম্বার অ্যান্ড কমার্স ইন্ডাস্ট্রিজ (এফবিসিসিআই) সভাপতি কাজী আকরাম উদ্দিন আহমেদ বলেছেন, আইন করে হরতাল বন্ধের আহ্বান জানালেও কোন রাজনৈতিক দল তা করেনি। কারণ, তারা যখন ক্ষমতায় থাকেন না, তখন তাদের হরতাল ছাড়া চলে না। তবে এ অবস্থা বেশি দিন থাকবে না উল্লেখ করে তিনি বলেন, জনগণ জেনেছে হরতাল তাদের কোন উপকারে আসে না। সে কারণে নিজ উদ্যোগেই হরতাল বন্ধের পদপেক্ষ নেবে। ইতিমধ্যে, ব্যবসায়ী ও জনগণ নিজ উদ্যোগেই হরতাল প্রতিহত শুরু করে দিয়েছে বলেও মন্তব্য করেন তিনি। দেশে এক সপ্তাহ ধরে চলেছে হরতালের নামে নৈরাজ্য সৃষ্টির অশুভ প্রতিযোগিতা। এতে সরবরাহ ব্যবস্থা সম্পূর্ণ ভেঙে পড়েছে। গতকাল এফবিসিসিআইয়ের কনফারেন্স রুমে এফবিসিসিআই আয়োজিত ‘হরতালে বিপর্যস্ত জনজীবন ও অর্থনীতি’ শীর্ষক এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন। তিনি বলেন, রমজানে দ্রব্যমূল্য সাধারণ মানুষের নাগালের মধ্যে রাখতে এফবিসিসিআই বিভিন্ন উদ্যোগ গ্রহণ করেছে। সরকারও আমাদের সহায়তা করেছে; যে কারণে নিত্যপ্রয়োজনীয় ভোগ্যপণ্যের মূল্য নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। এ সময় তিনি বলেন, রমজানের শুরুতে কাঁচামরিচ ও পেঁয়াজের দাম নিয়ে প্রশ্ন উঠেছিল। তবে আমরা জরুরি ভিত্তিতে ব্যবস্থা গ্রহণ করে স্বল্পসময়ে পার্শ্ববর্তী দেশ থেকে কাঁচামরিচ আমদানি করে চাহিদা ও সরবরাহের ভারসাম্য তৈরি করেছি। এ ছাড়া সরকারও কাঁচামরিচ আমদানির ওপর কর প্রত্যাহার করেছে। ফলে, কাঁচামরিচের মূল্য সহনীয় পর্যায়ে চলে এসেছে। তিনি বলেন, কিন্তু, পবিত্র রমজান মাসে বিভিন্ন রাজনৈতিক দল ও সংগঠন আকস্মিকভাবে পর পর চারদিন হরতাল ডেকে ব্যাপক ভাঙচুর, অগ্নিসংযোগ ও সহিংসতামূলক কর্মকাণ্ড চালিয়ে যাচ্ছে। হরতালের কারণে কোন উদ্যোগই সফল হচ্ছে না উল্লেখ করে কাজী আকরাম বলেন, একটানা হরতালের কারণে রমজানে পণ্যের বাজার সহনীয় রাখার লক্ষ্যে সরকার ও এফবিসিসিআইয়ের যৌথ উদ্যোগ অকার্যকর হয়ে যাচ্ছে। ফলে, নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যর মূল্য সহনীয় পর্যায়ে ধরে রাখা সম্ভব হচ্ছে না। তিনি আরও বলেন, স্থানীয় বাজারে পুরো বছর যে পরিমাণ পণ্য বিক্রি হয়, রমজান মাসেই তার সমপরিমাণ বিক্রি হয়। কিন্তু, চলমান হরতাল, ভাঙচুর ও রাজনৈতিক অস্থিরতায় রমজানে ঈদকেন্দ্রিক বাণিজ্যে বিপর্যয় নেমে আসার আশঙ্কা সৃষ্টি হয়েছে। ভোগ্যপণ্যের ব্যবসা-বাণিজ্যেও অচলাবস্থার সৃষ্টি হয়েছে। এতে করে রমজান মাসে ব্যবসায়ীদের মধ্যে আশঙ্কার সৃষ্টি করছে। এফবিসিসিআইয়ের সভাপতি বলেন, হরতালের কারণে উৎপাদন কার্যক্রম ব্যাহত হচ্ছে। অধিকাংশ সময় দোকান ও মার্কেট বন্ধ থাকছে। সার্বিক বেচাকেনার ওপর বিরূপ প্রভাব পড়ছে। তিনি বলেন, বাজার ব্যবস্থায় সরবরাহ চেইন খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এ জন্য প্রয়োজন উৎপাদন থেকে ভোক্তা পর্যন্ত নিরবচ্ছিন্ন যোগাযোগ ব্যবস্থা। কিন্তু সামপ্রতিক সময় তার পরিপন্থি।

>