শুক্রবার , ২৩শে এপ্রিল, ২০২১ , ১০ই বৈশাখ, ১৪২৮ , ১০ই রমজান, ১৪৪২

হোম > বিনোদন > হাসপাতালে ভর্তি নাসরিন, শিল্পী সমিতির বিরুদ্ধে ক্ষোভ

হাসপাতালে ভর্তি নাসরিন, শিল্পী সমিতির বিরুদ্ধে ক্ষোভ

শেয়ার করুন

বিনোদন ডেস্ক ॥
পেটের টিউমারে আক্রান্ত চলচ্চিত্রের জনপ্রিয় অভিনেত্রী নাসরিন। বর্তমানে তিনি রাজধানীর সিদ্ধেশ্বরীর মনোয়ারা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। আগামী শুক্রবার (১৩ মার্চ) তার অস্ত্রোপচার হবে বলে জানিয়েছেন ডা. শামসাদ জাহান শান্তা।

এই অভিনেত্রী জানান, গেল দুই বছর ধরেই তিনি পেটের টিউমারে ভুগছেন। সেটি দিনে দিনে অনেক বড় হয়ে গেছে। অবস্থা গুরুতর। এখনই অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে টিউমারটি অপসারণ করা না হলে সেটি জীবনের জন্য হুমকি হয়ে উঠবে বলে জানিয়েছেন তার চিকিৎসক।

ডা. শামসাদ জাহান শান্তা বলেন, ‘নাসরিন ম্যাডামকে আমি প্রায় দুই বছর ধরে চিকিৎসা করছি। উনার টিউমারের বিষয়টি আমরা অবগত ছিলাম। তবে সম্প্রতি পরীক্ষার পর দেখেছি টিউমারটি অনেক বড় হয়ে গেছে। এই মুহূর্তে অপারেশন না করালে মারাত্মক সমস্যায় পড়তে হবে উনাকে। আমরা চাইছি, শুক্রবারের মধ্যে তিনি যেন অপারেশন করান।’

নাসরিন বলেন, ‘আমার সমস্যাটা এত বেশি, তা আগে ঠিক বুঝতে পারিনি। তবে কিছুদিন ধরে হাঁটাচলায় বিষয়টি অনুভব করছিলাম। দুই বছর ধরে আমি ওষুধ খাচ্ছি, তার পরও এত বড় হয়ে যাবে, বুঝিনি। আগামী শুক্রবার অপারেশন করাতে হচ্ছে। শরীরে আবার রক্তশূন্যতা চলছে। তাই অনেক রক্তের প্রয়োজন। এরই মধ্যে দুই ব্যাগ রক্ত গ্রহণ করেছি। শরীরের জন্য আরো রক্ত প্রয়োজন।’

নাসরিন আরো বলেন, ‘আমি মানসিকভাবে অনেক বেশি ভেঙে পড়েছি। নিজেকে অসহায় মনে হচ্ছে। সবাই আমার জন্য দোয়া করবেন, আমি যেন দ্রুত সুস্থ হয়ে উঠি। আবারও যেন কাজ দিয়ে আপনাদের মাঝে থাকতে পারি।’

এদিকে অসুস্থ অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি নাসরিনকে দেখতে না এসে চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির নেতারা একটি অভিযোগকে কেন্দ্র করে তাকে চিঠির পর চিঠি পাঠিয়ে বিরক্ত করছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। অভিনেত্রী নাসরিনও বিষয়টির সত্যতা স্বীকার করলেন। তিনি বলেন, ‘নিঝুম রুবিনা, আন্না ও সাইফ খানের একটি অভিযোগ রয়েছে আমার বিরুদ্ধে। সেই অভিযোগের প্রেক্ষিত্রে শিল্পী সমিতির সাধারণ সম্পাদক স্বাক্ষরিত একটি চিঠি আমার কাছে পাঠানো হয়। যেখানে আমাকে ৩ মার্চ সমিতির কার্যালয়ে উপস্থিত থেকে এর ব্যাখ্যা দিতে বলা হয়।

আমিও চিঠিতে তার জবাব দিয়ে জানিয়েছি যে আমি অসুস্থ। সুস্থ হলে সমিতিতে অবশ্যই যাবো। আমি অসুস্থ এটা শুনেও কেউ আমাকে দেখতে আসলেন না। উল্টো আরও একবার কড়া ভাষার নোটিশ পাঠিয়েছে ৮ মার্চ যেন উপস্থিত থাকি।

আমি জানতে চাই, সমিতি এত নিষ্ঠুর কীভাবে হলো? শিল্পীদের স্বার্থে যে সমিতি সেখানে কেন এ ধরনের আচরণ হবে! একজন শিল্পী যখন অসুস্থ হয় তখন শিল্পী সমিতির পক্ষ থেকে তার খোঁজখবর নেওয়া উচিত। অথচ শিল্পী সমিতির তরফ থেকে সভাপতি ও সেক্রেটারি কেউই আমার কোনো খোঁজ খবর না নিয়ে আরেকটা চিঠি দিয়ে মানসিক যন্ত্রণা বাড়িয়ে দিচ্ছে। আমি তো পালিয়ে যাচ্ছি না। সুস্থ হয়ে ফিরলে অবশ্যই যাবো। যেতে হবে। তাহলে কেন এত চাপ? এই কি বর্তমান শিল্পী সমিতির কাজ? শিল্পীর জীবন নিয়ে চিন্তা নেই সমিতির অসম্মান নিয়ে মরছে তারা। শিল্পীর জীবনের চেয়ে কী সমিতি বড়?’

প্রসঙ্গত, অভিনেত্রী নাসরিন ১৯৯২ সালে সোহানুর রহমান সোহান পরিচালিত ‘লাভ’ চলচ্চিত্রে অভিনয়ের মাধ্যমে কর্মজীবন শুরু করেন। তিনি দিলদারের সঙ্গে জুটি বেঁধে অভিনয় করে তুমুল জনপ্রিয়তা পান। দিলদার মারা গেলে তিনি কাবিলার সঙ্গেও জুটি বেঁধে অভিনয় করে সফল হন। চলচ্চিত্রে পার্শ্বচরিত্রের অনেক গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকায়ও অভিনয় করেছেন তিনি।

হাসিবুর রেজা কল্লোল পরিচালিত ‘সত্তা’ সিনেমায় অনন্য অভিনয়ের জন্য নাসরিন শ্রেষ্ঠ পার্শ্ব অভিনেত্রী হিসেবে বাচসাস পুরস্কার অর্জন করেন। বর্তমানে নাসরিন দুই সন্তানের জননী। স্বামী রিয়েল খানও চলচ্চিত্র অভিনেতা। জাগোনিউজ।

>