বুধবার , ২৫শে নভেম্বর, ২০২০ , ১০ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ , ৯ই রবিউস সানি, ১৪৪২

হোম > অর্থ-বাণিজ্য > ৩ বছর পর পুঁজিবাজারে ব্যাংকের বিনিয়োগ হবে মূলধনের ২৫%

৩ বছর পর পুঁজিবাজারে ব্যাংকের বিনিয়োগ হবে মূলধনের ২৫%

শেয়ার করুন

স্টাফ রিপোর্টার ॥ জাতীয় সংসদে ব্যাংক কোম্পানি (সংশোধন) আইন, ২০১৩ পাস হয়েছে। গতকাল সংসদ অধিবেশনে আইনটি পাস হয়। নতুন আইনে বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলো পুঁজিবাজারে তাদের পরিশোধিত মূলধন, শেয়ার প্রিমিয়াম, সংবিধিবদ্ধ সঞ্চিতি ও রিটেইন আর্নিংয়ের মোট পরিমাণের ২৫ শতাংশের বেশি পুঁজিবাজারে বিনিয়োগ করতে পারবে না। তবে বর্তমানে কোনো ব্যাংকের বিনিয়োগের পরিমাণ ২৫ শতাংশের বেশি থাকলে তা ৩ বছরের মধ্যে কমিয়ে আনতে হবে। ব্যাংক কোম্পানি আইন, ১৯৯১ অনুযায়ী এতোদিন ব্যাংকগুলো মোট দায়ের (আমানত) ১০ শতাংশ অর্থ শেয়ারবাজারে বিনিয়োগ করতে পারত। তবে বর্তমানে পুঁজিবাজারে প্রায় কোনো ব্যাংকের বিনিয়োগের পরিমানই ২ শতাংশের বেশি নেই। নতুন আইন কার্যকর হলেও বর্তমান অবস্থায় কোনো ব্যাংকের বিনিয়োগই মূলধন ও সঞ্চিতির ২৫ শতাংশের সীমা অতিক্রম করবে না। নতুন আইনে সংশোধনীতে ব্যাংক ব্যবস্থাপনায় শৃঙ্খলা আনতে পরিচালকদের সংখ্যা বেধে দেয়া হয়েছে। এখন থেকে প্রতিটি ব্যাংকে সর্বোচ্চ ২০ জন পরিচালক থাকতে পারবেন। এর মধ্যে ৪ জন হবেন স্বতন্ত্র পরিচালক। আগের আইনে পরিচালকের কোন সংখ্যা নির্দিষ্ট করা ছিল না। এছাড়া পরিচালকদের মেয়াদের েেত্র ব্যাংকগুলো এতোদিন আলাদা নিয়ম অনুসরণ করলেও এ আইন পাস হলে এক মেয়াদে ৩ বছরের বেশি সময় কেউ পরিচালক থাকতে পারবেন না। তবে একজন পরিচালক পরপর দুই মেয়াদ পরিচালক থাকতে পারবেন। এরপর মাঝখানে বিরতি দিয়ে আবারও পরিচালক হওয়ার সুযোগ পাবেন। আর বর্তমানে যারা ২ মেয়াদের বেশি সময় ধরে রয়েছেন তারা তাদের মেয়াদ পূর্ণ করবেন। সংশোধনী অনুযায়ী কোন ব্যক্তি একটি ব্যাংকের পরিচালক থাকাকালে একই সময়ে তিনি অন্য কোন ব্যাংক, আর্থিক প্রতিষ্ঠান বা বীমা কোম্পানির পরিচালক থাকতে পারবেন না। তবে বর্তমানে কেউ ব্যাংকের পাশাপাশি বীমা কোম্পানির পরিচালক হিসেবে থাকলে তিনি সর্বোচ্চ এক মেয়াদে বীমা কোম্পানির পরিচালক থাকতে পারবেন। নতুন আইন লংঘন করলে বাংলাদেশ ব্যাংক ব্যক্তির পাশাপাশি সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানকে সর্বোচ্চ ২০ লাখ টাকা জরিমানা করতে পারবে। নির্ধারিত সময়ে জরিমানা আদায় না হলে প্রতিদিন ৫০ হাজার টাকা করে অতিরিক্ত জরিমানা গুণতে হবে। সমবায় সমিতির নামে কেউ যাতে ব্যাংকিং কার্যক্রম চালাতে না পারে সে ব্যবস্থাও রাখা হয়েছে এ আইনে।

>